যে ৮টি উপায়ে সহজেই সময় বাঁচাতে পারবেন

life hacks, life tips, shomoy, Study Hacks, time management, সময়

ইশ! দিনটা যদি আরেকটু বড় হত! একটা দিন ২৪ ঘণ্টা না হয়ে ৪৮ ঘণ্টা হলে কত ভালো হত! সময় নিয়ে এমন আক্ষেপ কমবেশি আমাদের সবারই। সারাদিন কাজ করার পরও প্রায়ই অনেকগুলো কাজ বাকি রয়ে যায়। আপনি সময়কে পরিবর্তন করতে পারবেন না, কিন্তু সময়কে আরও দক্ষতার সাথে ব্যবহার করতে তো অবশ্যই পারবেন!


কথিত আছে, সময়ের এক ফোঁড় অসময়ের দশ ফোঁড় অর্থাৎ সময়মত কাজ না করতে পারলে, সেই কাজ করতে আরো অনেক বেশি সময় লেগে যায়।

দারুণ সব লেখা পড়তে ও নানা বিষয় সম্পর্কে জানতে ঘুরে এসো আমাদের ব্লগের নতুন পেইজ থেকে!

দিনকে পরিবর্তন করার ক্ষমতা আমাদের নেই, তবে সময়কে আরো দক্ষতার সাথে ব্যবহার করার ক্ষমতা আমাদের আছে। আর, এই দক্ষতা দিয়ে আপনি বাঁচিয়ে ফেলতে পারেন অনেকটা সময়। আপনার কাজগুলো দক্ষতার সাথে করতে সাহায্য করবে এই কৌশলগুলো:

১. সহজ কাজ দিয়ে শুরু

যে কাজগুলো করতে সময় কম লাগে, সেগুলো আগে শেষ করে ফেলুন। তারপর বড় কাজগুলো করা শুরু করুন।

একজন মানুষের মস্তিষ্ক একই সময়ে সাত ধরণের তথ্য রাখতে পারে

– এমনটি মনে করেন Carnegie Mellon বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক  David Creswell.

Creswell-এর এই কথাটি শুনে আপনি হয়তো একই সাথে অনেক কাজ করার জন্য অনুপ্রাণিত হবেন। তবে জেনে রাখা প্রয়োজন, দীর্ঘ সময় ধরে একটি কাজ করার পর আপনি যখন অন্য একটি সহজ কাজ শুরু করেন, তখন আগের কাজের ৪৫% তথ্য মস্তিষ্ক মুছে ফেলে। আর এটি আপনার সময়কেও নষ্ট করে। তাই সহজ কাজটি আগে করার চেষ্টা করুন। এতে আপনার সময় বাঁচবে এবং একই সাথে কাজও দক্ষতার সাথে করা সম্ভব হবে।

ঘুরে আসুন: Elon Musk-এর জীবন থেকে Productivity বাড়ানোর ৫ কৌশল

২. ক্যালেন্ডারের ব্যবহার

গুরুত্বপূর্ণ দিন, কাজ বা তথ্য ক্যালেন্ডারে মার্ক করে রাখুন। এতে আপনি দু’টি সুবিধা পাবেন। প্রথমত, আপনি কোন কিছু ভুল যাবেন না। আর দ্বিতীয়ত, আপনার নিত্যদিনের কাজের তালিকা সহজে তৈরি করে নিতে পারবেন। এছাড়া দেয়ালে টানানো ক্যালেন্ডার ছাড়াও বর্তমানে আপনি ব্যবহার করতে পারেন গুগল ক্যালেন্ডার।

গুগল ক্যালেন্ডারের সুবিধা হলো, এটি এসএমএস, নোটিফিকেশন ইত্যাদির মাধ্যমে বিশ্বের যেকোনো জায়গায় মোবাইলে আপনার দরকারি ইভেন্ট সম্পর্কে আপনাকে মনে করিয়ে দিবে এবং তা অফলাইনেই।

যারা এন্ড্রয়েড স্মার্টফোন ব্যবহার করে তাদের ক্যালেন্ডার গুগল ক্যালেন্ডারের সাথে সিনক্রোনাইজ করা থাকে। এতে করে মোবাইল  ক্যালেন্ডারে রাখা যেকোনো তথ্য হারানোর সম্ভাবনা কমে যায়।

৩. কঠিন কাজের মাঝে সময় বিরতি

কঠিন ও সময়সাপেক্ষ কাজ করার মাঝে কিছুটা বিরতি নিয়ে তারপর আবার কাজ শুরু করুন। কাজের মাঝে ২ মিনিটের বিরতি কাজকে আরও দ্রুত করতে সাহায্য করে ।

Creswell বলেছেন,কাজের বিরতির সময় আপনার মস্তিষ্ক কাজের তথ্যগুলো সাজিয়ে ফেলে, যা আপনার কাজকে আরও সহজ করে তোলে তবে তিনি মাল্টিটাস্কিং করা থেকে বিরত থাকতে বলেছেন।

৪. আগের রাতেই প্রস্তুতি

পরের দিনের কাজের কিছু প্রস্তুতি আগের রাতে করে রাখুন। এতে করে আপনার সময় বাঁচার পাশাপাশি কাজের দক্ষতাও বৃদ্ধি পাবে। একটি সুন্দর দিন শুরু করার জন্য রাতের ঘুম অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। আপনি যদি আগেই কাজ কিছুটা এগিয়ে রাখেন, তবে রাতে নিশ্চিন্তে ঘুমাতে পারবেন।

নিজেই করে ফেল নিজের কর্পোরেট গ্রুমিং!

কর্পোরেট জগতের সাথে তাল মিলিয়ে চলতে গেলে জানতে হয় কিছু কৌশল।

এগুলো জানতে ও শিখতে তোমাদের জন্যে রয়েছে দারুণ এই প্লে-লিস্টটি!

১০ মিনিট স্কুলের Corporate Grooming সিরিজ

তবে হ্যাঁ, ঘুমের মধ্যে মস্তিষ্ক সমস্যার সমাধান করে থাকে। তাই ঘুমাতে যাওয়ার আগে পরের দিনে কাজের সমস্যার কিছুটা চিন্তা করে রাখুন, দেখবেন দারুণ একটা সমাধান পেয়ে গেছেন ঘুমের মধ্যে। ফেসবুকিং করার একটা রুটিন করে নিন। যখন তখন ফেসবুকে লগ-ইন করার অভ্যাস বাদ দিন।

৫. সিদ্ধান্ত কম নিন

যেকোন সিদ্ধান্ত অনেকখানি সময় নষ্ট করে। ছোটখাটো সিদ্ধান্ত নেওয়া ছেড়ে দিন। আপনি জানেন কি? যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা যে মাত্র দু’টি রঙের স্যুট পড়েন? এতে তাঁর সিদ্ধান্ত নেওয়ার সময় এবং চাপ, দুইই অনেকখানি কমে যায়। এমনকি, তিনি মাত্র তিন উপায়ে সিদ্ধান্ত নিতে পছন্দ করেন। একমত, ভিন্নমত এবং আলোচনা।

৬. পছন্দের ক্ষেত্রে সীমাবদ্ধতা

আপনি আপনার চাকরির ধরণ পরিবর্তন করতে পারবেন না কিংবা ঘরের কাজ কমিয়ে ফেলতে পারবেন না। তাই পছন্দে সীমাবদ্ধতা নিয়ে আসুন। খুব বেশি অপশন আপনাকে বিভ্রান্ত করবে, এর বেশি কিছু নয়।

খুব বেশি বাছবিচার আপনাকে পঙ্গু করে দিবে”-কলম্বিয়া ইউনিভার্সিটির বিজনেস প্রফেসর শিনা আইঙ্গা এমনটিই ধারণা করেন। তাই পছন্দে সীমাবদ্ধতা নিয়ে আসুন।

ঘুরে আসুন:  রুটিন কেন বানাতে হবে? জেনেই নাও তবে

৭. ইচ্ছাশক্তিকে কাজে লাগানো

যেকোন প্রকার সাফল্যের পেছনে রয়েছে ইচ্ছাশক্তি। ইচ্ছাশক্তিই পারে দক্ষভাবে কাজ সম্পন্ন করতে। ফ্লোরিডা স্টেট ইউনিভার্সিটির মনস্তত্ত্ববিদ রয় বোমিস্টার কয়েকজন মানুষকে সাধারণ কিছু কাজ ইচ্ছাশক্তি দিয়ে করার জন্য বলেন এবং তিনি দেখেন, তারা আগের চেয়ে আরো বেশি দক্ষতার সাথে কাজগুলো করতে পারছেন।

ইন্টারনেট শুধু আমাদের সময় বাঁচিয়েই দিচ্ছে না, বরং, বাড়িয়ে দিয়েছে আমাদের কাজের দক্ষতাও

জটিল কাজগুলো সম্পূর্ণ করার ক্ষেত্রে নিজের ইচ্ছাশক্তিকে কাজে লাগান। দিনের কঠিন সিদ্ধান্তগুলো সকালে নেওয়ার চেষ্টা করুন। এইসময় আপনি সঠিক সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে পারবেন।

সঠিকভাবে কোন ইংরেজি শব্দ উচ্চারণ করতে পারা ইংরেজিতে ভাল করার জন্য অত্যন্ত জরুরি।

৮. ইন্টারনেটে দক্ষতা

life hacks, life tips, shomoy, Study Hacks, time management, সময়

গুগল আমাদের অনেক সময় বাঁচিয়ে দিয়েছে। একটি তথ্য বা প্রশ্নের উত্তর জানার জন্য এখন আর ফোন করতে হয় না। গুগলে সার্চ দিলে সেই প্রশ্নের উত্তর পাওয়া যায়।

ইন্টারনেট শুধু আমাদের সময় বাঁচিয়েই দিচ্ছে না, বরং, বাড়িয়ে দিয়েছে আমাদের কাজের দক্ষতাও! বর্তমানে অ্যাপ স্টোরের বিভিন্ন অ্যাপ ব্যবহার করে সহজেই আমরা সময়ের অপচয় কমাতে পারি। কিন্তু কাজের সময় ফোন, ইমেইল, ফেসবুক বন্ধ রাখুন।

দৈনন্দিন জীবনে সময় বাঁচানোর জন্য শুধুমাত্র এই আটটি নয়; আরও বহু উপায় আছে। এখানে আমি শুধুমাত্র কার্যকর কিছু উপায় তুলে ধরেছি। তবে বাস্তবিকভাবে সময় বাঁচানোর ব্যাপারটি সম্পূর্ণভাবে আপনার মনোভাব এবং মনোবলের উপর নির্ভরশীল। কেননা সময় কাজে লাগানোর পেছনে যে নিয়ামকটি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ, তা হচ্ছে আপনার ‘ইচ্ছাশক্তি’!


১০ মিনিট স্কুলের লাইভ এডমিশন কোচিং ক্লাসগুলো অনুসরণ করতে সরাসরি চলে যেতে পারো এই লিঙ্কে: www.10minuteschool.com/admissions/live/

১০ মিনিট স্কুলের ব্লগের জন্য কোনো লেখা পাঠাতে চাইলে, সরাসরি তোমার লেখাটি ই-মেইল কর এই ঠিকানায়: write@10minuteschool.com

এই লেখাটি শেয়ার কর!
Author
Mumu Jannah

Mumu Jannah

Currently studying at IER,University of Dhaka. Loves photography and traveling. Is a bookworm. Strongly believes in empowerment.
Mumu Jannah
What are you thinking?