ইংরেজিতে ভালো করতে…

পুরোটা পড়ার সময় নেই ? ব্লগটি একবার শুনে নাও !

ইংরেজিতে কেন ভালো করা দরকার তার প্রয়োজনীয়তা ব্যাখ্যা করে সময় ব্যয় করতে চাইছি না। তাই চলুন সরাসরি দেখে আসি চমৎকার কিছু টিপস!

বি .দ্র . যত টেকনিকই জানা থাকুক না কেন, শুরু করতে হবে। শুরু করাটাই কিন্তু এ ক্ষেত্রে আসল। 

১। মৌখিক ইংরেজি (Spoken English):

(ক) অনুসরণ নয়, ‘অনুকরণ’ (সর্বোচ্চ Effective):

আরও স্পষ্ট করে বললে বলতে হবে- নকল করা। শুনতে খারাপ লাগছে নিশ্চয়ই? কিন্তু এটাই সত্য যে, ইংরেজিতে ভালো দক্ষতা অর্জনের সূচনাই হয় কাউকে অনুকরণের চেষ্টা থেকে!

পরিচিত যেই মানুষটির ইংরেজিতে কথা বলা আপনার সবচেয়ে পছন্দ হয়, আপনি তাকেই নিয়মিত অনুসরণ করুন এবং পরবর্তীতে বাসায় বসে একা একা তাকে অনুকরণ করে বলার চেষ্টা করুন।

ঘুরে আসুন: Networking Know-Hows

একটু থামুন। হতাশ হবেন না। আপনি প্রথমেই কিন্তু পেরে যাবেন না! বারে বারে তোতলানো, শব্দ ভুলে যাওয়া ইত্যাদি আরও অনেক সমস্যা হতেই  থাকবে। কিন্তু ধীরে ধীরে আপনি নিশ্চিত আয়ত্ত করতে পারবেন এবং তখন আপনিই বুঝতে পারবেন যে, কোন স্টাইলে কথা বলতে ‘আপনি’ সবচেয়ে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন।

পুনরায় বলছি, এটিই সবচেয়ে Effective পদ্ধতি।   

(খ) নিজের সাথে কথা বলুন:

সত্যিই, এর চেয়ে ভালো অনুশীলন আর হতেই পারে না! আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে নিজের সাথে কথা বলুন ‘যে কোন বিষয়’ নিয়ে। উদাহরণঃ ধরে নিলাম আপনি গানপ্রেমিক। তাহলে আপনার কথোপকথন হতে পারে এরকম-

-আই তুই  মমতাজ এর নতুন গান টা শুনেছিস? (Hey pal! Did you just hear the new song by Mamtaj?)

– না তো! কোনটা?  (Umm..No! Which one?)

– আরে ‘লোকাল বাস’!  ( Local Bus! )

– মানে? গানের নামই কি এইটা? (What? I mean, is that the NAME of the song?)

– আরে হ্যাঁ! আমি দেখে হাসতে হাসতে শেষ! লিরিক্সগুলা আরও মজার! (Yeah! I laughed really hard seeing this! The lyrics are even funnier!)

– হাহাহা! তাই নাকি? তাহলে তো দেখতেই হবে! (Hahaha! Really? Need to watch it then!)

বিশ্বাস করুন, এরূপ ছোট ছোট ও মজার কথোপকথনই আপনার জড়তা কাটাতে এবং নতুন নতুন শব্দ শিখতে দারুণভাবে সহায়তা করবে!

সঠিকভাবে কোন ইংরেজি শব্দ উচ্চারণ করতে পারা ইংরেজিতে ভাল করার জন্য অত্যন্ত জরুরি।

(গ) বন্ধুরাই হোক আপনার গাইড:

দিনের বেশির ভাগ সময়, কিংবা সবচেয়ে উপভোগ্য সময়টুকু আপনি বন্ধুদের সাথেই কাটিয়ে থাকেন। তাই তাদের সাথেই নিয়মিত ইংরেজিতে কথা বলার অভ্যাস গড়ে তুলুন। এভাবে পরিচিত মুখগুলোর মাঝে নিয়মিত বলার চেষ্টা করলে আপনার ইংলিশ-ফোবিয়া একান্তই কমে যাবে

শুধু খেয়াল রাখবেন দুটো বিষয়ঃ (১) লজ্জা পাবেন না। এটি একটি অনুরোধ। কেননা দিন শেষে আপনিই কিন্তু সুদে-আসলে লাভবান হবেন! (২) নির্ভয়ে ভুল করবেন। হোক সেটা উচ্চারণ কিংবা ব্যাকরণ, ভুল না করলে বন্ধুরা হাসবে না, ফলে আপনি জানবেনও না যে আপনি ভুল করছেন এবং তা আপনাকে শুধরাতে হবে। বন্ধুরাই হতে পারে আপনার এই অনুশীলনের সর্বোচ্চ সহায়ক।

বি.দ্র. সবচেয়ে বেশি বলতে চেষ্টা করবেন ভালো ইংরেজি জানা বন্ধুটির সামনে । এর বিনিময়ে আপনিও তার কাছ থেকে শিখবেন, সেই সাথে আপনার ভুলগুলো তার নজরে পড়লে সঙ্গে সঙ্গে শুধরেও নিতে পারবেন।

(ঘ) স্পষ্ট উচ্চারণের চেষ্টা:

সবসময় মনে রাখবেন, ‘দ্রুত ইংরেজি বলতে পারা’ কখনই আপনাকে ভালো বক্তা হওয়ার পরিচয় দেয় না যদি আপনার ‘উচ্চারণ’ স্পষ্ট না হয়। প্রাথমিক অবস্থায় Fluency’র প্রতি বেশি খেয়াল রাখার প্রয়াস আপনাকে শুধু হতাশই করে যাবে যা আপনার শেখার উৎসাহকে বিঘ্নিত করবে। তাই, স্পষ্ট উচ্চারণের প্রতি জোর দিন, Fluency’র  প্রতি নয়।

স্পষ্ট উচ্চারণের জন্য যা করতে পারেনঃ যেকোনো শব্দকে Syllable-এ ভেঙ্গে নিয়ে বলার চেষ্টা করবেন। যেমনঃ Responsibilities শব্দটিকে ভাঙ্গুন। তাহলে হবে Res-pon-si-bi-li-ties। এবারে একটি একটি করে সিলেবল উচ্চারণ করুন। এতে আপনার উচ্চারণ করাও যেমন সহজ হবে, বানান ভুল করার সম্ভাবনাও তেমন কমে আসবে।

মজায় মজায় ইংরেজি শিখ!

তোমার স্বপ্নের পথে পা বাড়ানোর ক্ষেত্রে তোমার ইংরেজির জ্ঞান কার্যকরী ভূমিকা রাখতে পারে!

তাই আর দেরি না করে, আজই ঘুরে এস ১০ মিনিট স্কুলের এই এক্সক্লুসিভ প্লে-লিস্টটি থেকে!

১০ মিনিট স্কুলের ইংরেজি ভিডিও সিরিজ

(ঙ) সাবটাইটেল(Subtitle) সহ ইংরেজি মুভি দেখুন:

আমরা বলে থাকি- ‘আমার ফোনের চার্জ শেষ হয়ে গেছে’। কথাটি ইংরেজিতে বলতে হলে আমরা হয়ত বলবঃ My phone’s charge is finished। এবারে এই বাক্যটি দেখুনঃ My phone’s battery is dead। তুলনা করে দেখুন তো কোনটি বেশি ভালো শুনাচ্ছে?

সাধারণ কথাগুলোকে ঠিক এভাবেই অসাধারনভাবে বলতে চাইলে ইংরেজি মুভি দেখার বিকল্প নেই! প্রথম অবস্থায় সাবটাইটেল সহ দেখলেও, পরবর্তীতে সাব টাইটেল ছাড়া দেখার চেষ্টা করাই কাম্য। এতে করে আপনার listening skill-ও বৃদ্ধি পাবে। মুভির বেশির ভাগ সংলাপ দৈনন্দিন জীবন সংক্রান্ত হওয়ায় ইংরেজি শেখার ক্ষেত্রে এগুলো আপনার জন্য দারুণ সহায় হতে পারে। এ ছাড়াও ইংরেজি খবরের চ্যানেল ও কিছু সিরিয়ালও নিয়মিত দেখতে পারলে উপকার হবে।

(চ) TEDx Talk:

TEDx Talk এর কথা না বললেই নয়। TEDx Talk দেখে অনুপ্রাণিত হয় নি এমন একটিও মানুষ খুঁজে পাওয়া দুষ্কর। TEDx Talk দেখে আপনি যেভাবে লাভবান হবেনঃ

  • TEDx Talk এর বেশির ভাগ বক্তা খুব ভালো পাবলিক স্পিকার হয়ে থাকেন। ফলে তাদের উচ্চারণ, বাচন ভঙ্গি ইত্যাদি দেখে আপনি শিখতে পারবেন অনেক কিছু!
  • TEDx Talk দেখে আপনার ইংরেজি শব্দভাণ্ডার (vocabulary) অনেকটাই সমৃদ্ধ হবে বলে কথা দিচ্ছি। বক্তব্যের মাঝে কোন শব্দ বুঝতে না পারলে সাথে সাথে অভিধানটি খুঁজে তা জেনে নিন।
  • TEDx Talk বিশ্বের বিভন্ন দেশে অনুষ্ঠিত হয় বিধায় আপনি এখানে বিভিন্ন accent এর ইংরেজি শোনার সুযোগ পাবেন। ভিডিওগুলো দেখে আপনিই বেছে নিতে পারবেন কোনটি আপনি অনুসরণ করতে চান। আমাদের দেশের জন্য সবচেয়ে বেশি রিলেটেবল accent এর একটি ভিডিও’র লিঙ্ক এখানে শেয়ার করছিঃ https://www.youtube.com/watch?v=F4Zu5ZZAG7I
  • আইডিয়া! TEDx Talk দেখে দেখে আপনি পেয়ে যাবেন অসাধারণ সব আইডিয়া যেগুলো পরবর্তীতে নিজের বক্তব্যে আপনি উদাহরণ হিসেবে ব্যবহার করতে পারবেন।

অতএব, TEDx Talk শুধু আপনার ইংরেজি শেখার সঙ্গীই নয়, হতে পারে আপনার জন্য একটি বিশাল জ্ঞানের ভাণ্ডার!

ঘুরে আসুন: ইংরেজিতে FLUENT হওয়ার ৭টি টিপস

(ছ) নিজের কথা রেকর্ড করুন স্মার্টফোনে!

আপনার মস্তিষ্ক ঠিকই জানে কোন পরিস্থিতি এবং ভাব(Mood) অনুযায়ী কথার টোন ও উচ্চারণ কেমন হওয়া চাই। তবে বাস্তবে বলার সময় আসলেই তা হচ্ছে কি না, তা পরখ করতেই আপনার স্মার্টফোনই হতে পারে আপনার সহায়।

ইংরেজি একটি বই/পত্রিকা নিন, সেটি পড়ুন, রেকর্ড করুন এবং নিজেই যাচাই করুন আপনার উচ্চারণ এবং টোন। প্রয়োজনে রেকর্ডিংটি একজন বন্ধুকে শুনিয়ে নিন এবং জেনে নিন আপনার ভুলগুলো।

(জ) জোরে জোরে পড়ে শোনান নিজেকে:

ইংরেজি যেকোনো লেখা জোরে জোরে পড়ুন যেন আপনি নিজে তা শুনতে পান। স্পষ্ট ও  জড়তা মুক্ত উচ্চারণ করতে এই পদ্ধতির জুড়ি নেই!

যা লেখার আছে ইংরেজিতেই লিখুন। শেয়ার করুন আপনার টাইমলাইনে এবং নিজেই দেখুন নিজের উন্নতির ধারা!

২। লিখিত ইংরেজি(Written English):

রিটেন ইংলিশে দক্ষতা বাড়াতে ৩টা জিনিস প্রয়োজন। যথাঃ

*সমৃদ্ধ ভোকাবুলারি

*সঠিক বানান ও উচ্চারণ

*সঠিক ব্যাকরণ

কীভাবে এই ৩টি বিষয় আপনি আয়ত্ত করবেন, সেই উপায়গুলোই উল্লেখ করছি।

(ক)  পড়তে হবে প্রচুর!

বলা হয়, ‘we learn to write best by reading’। শব্দসমূহের উপযুক্ত ক্ষেত্রে ব্যবহার(using the right word in the right place, in a right sense) এবং বাক্য লেখার নানান স্টাইল বুঝতে ও শিখতে নিয়মিত পড়ার অভ্যাস গড়ে তুলতে হবে। সবচেয়ে বড় কথা, অনেক লেখা পড়তে পড়তে এক পর্যায়ে গিয়ে  একটি ভালো ও খারাপ লেখার মাঝে পার্থক্যটি বোঝার জন্য আপনার চোখ তৈরি হয়ে যাবে। এ জন্য যা করতে পারেনঃ

  • ছোটদের গল্পের বই:

প্রাথমিক অবস্থায় ছোটদের গল্পের বইগুলো পড়তে পারলে বেশ উপকার হবে। জনপ্রিয় কিছু সিরিজ আছে। যেমনঃ The Adventures of Tom Sawyer, Harry Potter, Goosebumps, Diary of a Wimpy Kid, Matilda ইত্যাদি আরও অনেক। এগুলো প্রথমে পড়তে পারলে ভোকাবুলারি মোটামুটি ভালোই সমৃদ্ধ হওয়ার সুযোগ আছে। পরবর্তীতে পছন্দ অনুযায়ী অন্যান্য লেখকের বই পড়া শুরু করতে পারেন।

  • ইংরেজি পত্রিকা:

সব পৃষ্ঠা পড়ার বৃথা চেষ্টা করবেন না। আপনার পছন্দের পাতাটি থেকে রোজ অন্তত একটি করে আর্টিকেল পরুন। এতে করে আপনার ইংরেজি শেখা বোরিং হবে না নিশ্চিত!

(খ) ফ্ল্যাশকার্ড পদ্ধতিতে শিখুন:

Hair অর্থ চুল

Hare অর্থ খরগোশ।

উদাহরণটি দেখে নিশ্চয়ই বুঝতে পারছেন যে একটি ভুল উচ্চারণ ও ভুল বানান শব্দের অর্থই পরিবর্তন করে দেয়। তাই বানান, উচ্চারণ ও অর্থ মনে রাখতে আপনি তৈরি করে নিন ফ্ল্যাশকার্ড

যেভাবে তৈরি করতে হয়ঃ চারকোণা আকৃতির কাগজের ছোট ছোট টুকরা করুন। টুকরোগুলোর এক পাশে শব্দটি উচ্চারণ ও অর্থসহ লিখে রাখুন। এবারে সবগুলো একসাথে করে পিন লাগিয়ে রেখে দিন। ব্যাস! সময় পেলেই তা অনুশীলন করুন।

(গ) মুখস্থকে ‘না’ বলুন:

ধরে নিলাম আপনি ৯ম শ্রেণির একজন ছাত্র। এবারের পরিক্ষায় কম্পজিশনে আপনার বহু আকাংক্ষিত A journey by Boat  এর স্থলে World Peace  নিয়ে লিখতে বলা হল। আমি নিশ্চিত আপনি আঁতকে উঠবেন এবং আটকিয়েও যাবেন। কেন বলুন তো? কারণ আপনি প্যারাগ্রাফ, লেটার থেকে শুরু করে যাবতীয় সবকিছু ‘চৌধুরী এন্ড হুসেইন’ (বাংলা মিডিয়ামে ইংরেজির জন্য যেই বইটি অনুসরণ করা হয়) এর বই থেকে মুখস্ত করে গিয়েছেন। মুখস্ত করার দরুন সামান্য বানিয়ে লেখার জো আপনার ঐ মুহূর্তে থাকবে না। এজন্যেই সৃজনশীল ও ফ্রি হ্যান্ড লেখার ক্ষেত্রে মুখস্ত করা মানেই এক প্রকার আত্মহনন।

বিভিন্ন লেখকের বই পড়ুন; তবে তা শুধু ‘ধারণা’ নেবার জন্যে, মুখস্থ করার জন্যে নয়!

নিজে থেকে একটি ৫ শব্দের বাক্য লিখতে গেলেই  হয়ত দেখবেন ৩য় শব্দটি আপনি পারছেন  না। এবারে সেই ১টি  শব্দ খুঁজতেই আপনি অভিধান ঘাঁটতে গিয়ে ১টির জায়গায় আরও ৩টি শব্দ শিখে ফেলবেন। এখন তবে নিজেই বিবেচনা করুন- কোনটাতে আপনি বেশি লাভবান হচ্ছেন? মুখস্থ বা আত্মহনন করে নাকি নিজে থেকে লেখার অভ্যাস গড়ে তুলে?

বি.দ্র. ভালো ভালো বই অবশ্যই সংগ্রহে রাখা জরুরী। লেখা সম্বন্ধে ধারণা পেতে এগুলো দারুন কাজে আসবে। তবে হুবহু মুখস্থ করা থেকে বিরত থাকুন।

ঘুরে আসুন: যে ৯টি বই ইংরেজিকে করবে সহজ!

(ঘ) Idioms & Phrases এর ব্যবহার:

খেয়াল করুনঃ

  • সে একদম শেষ মুহূর্তে এসে পৌঁছালো। অনুবাদঃ
  • He reached at the last moment (সাধারণ)
  • He reached at the eleventh hour (অসাধারণ!)
  • অনেকগুলো অপরিচিত মানুষের মাঝে তিনি অস্বস্তি বোধ করছিলেন। অনুবাদঃ
  • He was feeling very uneasy among so many unknown faces. (সাধারণ)
  • He felt like a fish out of water among so many unknown faces. (অসাধারণ!)

এভাবেই লেখা ও কথার মান বৃদ্ধি করতে Idioms & Phrases আপনাকে অসম্ভব সহায়তা করবে। ইন্টারনেট ঘেঁটে, কিংবা কোন গ্রামার বই থেকে খুঁজে বের করুন কিছু Idioms & Phrases এবং আপনার প্রতিদিনের কথায় তা ব্যবহারের চেষ্টা করুন।

১০ মিনিট স্কুলের পক্ষ থেকে তোমাদের জন্য আয়োজন করা হচ্ছে অনলাইন লাইভ ক্লাসের! তাও আবার সম্পূর্ণ বিনামূল্যে!

(ঙ) নিয়মিত লেখার অভ্যাস গড়ে তুলুন:

এ জন্য যা করতে পারেনঃ

  • পছন্দের বিষয়ের সবকিছু করুন ইংরেজিতে:

শেখার বিষয়টি আনন্দময় হওয়া উচিত এবং তা আনন্দময় তখনই হবে যখন আপনার পছন্দের কোন বিষয় নিয়ে তা আপনি করবেন।

ধরে নিচ্ছি আপনি মুভি দেখতে খুব ভালবাসেন। এবার তবে আপনার খুব পছন্দের একটি মুভি নিয়ে লিখে ফেলুন একটি রিভিউ। এভাবে প্রতিবার একটি মুভি দেখুন এবং তা নিয়ে একটি রিভিউ লিখে ফেলুন ইংরেজিতে। অথবা, আপনি হয়ত প্রযুক্তি খুব ভালবাসেন। বেশ! প্রযুক্তি নিয়ে আপনার যা কিছু বলার আছে তা আপনি ইংরেজিতে বলুন, যা লেখার আছে ইংরেজিতেই লিখুন। শেয়ার করুন আপনার টাইমলাইনে এবং নিজেই দেখুন নিজের উন্নতির ধারা!

  • ফেসবুক হোক অনুশীলনের ক্ষেত্র:

আজকে থেকেই শুরু করতে পারেন এই চর্চাটি! আপনার ফেসবুক স্ট্যাটাস ও ছবির ক্যাপশনগুলো ইংরেজিতে লেখার প্রয়াস আপনাকে বিভিন্ন উপায়ে বাক্য গঠন করতে শিখাবে। ধরুন, কিছু কারণে আপনি আজ অনেক আনন্দিত।

  • সাধারণ উপায়ে আপনি স্ট্যাটাসে লিখবেনঃ I am very happy today.
  • Happy শব্দটির কয়েকটি Synonym বের করে ফেলুন গুগল থেকে। এবার দেখুন একই বাক্যটি আরও কতভাবে আপনি লিখতে পারছেন:
  • I am elated today!
  • I feel ecstatic today!

দারুন না? কীভাবে ফেইসবুকে একটি সুন্দর ইংরেজি স্ট্যাটাস/ছবির ক্যাপশন দেওয়ার প্রয়াস থেকে সুন্দর কিছু শব্দ শিখে ফেলছেন? এছাড়াও, লিখে ফেলতে পারেন একটি ছোট গল্প/ফিকশন/আপনার কোন বিষয় নিয়ে মতামত কিংবা যে কোন কিছু এবং তা ফেসবুক নোট হিসাবে পাবলিশ করতে পারেন।

(ঙ) বিশ্ববিদ্যালয়ের Assignment:

Assignment গুলো বন্ধু কিংবা গুগল থেকে Copy-Paste না করে নিজেই লেখার চেষ্টা করুন। নিজে নিজে নিয়মিত লিখলে ভয় তো দূর হবেই, সেই সাথে দিনে দিনে লেখার মানও বৃদ্ধি পাবে।

(চ) প্রাতিষ্ঠানিক কোর্স:

এরপরেও যদি আপনার মনে হয় যে একটি প্রাতিষ্ঠানিক কোর্স করে আপনি উপকৃত হবেন, তবে চলে আসতে পারেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাষা ইন্সিটিউটে। এখানে মোট ১২০ ঘণ্টার ক্লাস করে ইংরেজির উপর একটি নন-ডিগ্রি কোর্স করে নিতে পারেন।

৩। ব্যাকরণে পারদর্শীতে:

ব্যাকরণ বিষয়টি আয়ত্ত করা পুরোপুরি নির্ভর করে অনুশীলনের উপরে। তবে প্রাথমিক অবস্থায় ‘Tense’ এর প্রতি একটু নজর রাখলেই চলবে। বই হিসাবে যেকোনো পছন্দের লেখকের বই-ই ফলো করতে পারেন। ধীরে ধীরে অন্যান্য বিষয়গুলো আয়ত্ত করতে ১০ মিনিট স্কুলের পেইজ থেকে নিয়মিত অনুষ্ঠিত হওয়া লাইভ ক্লাস গুলোই যথেষ্ট। এজন্য নিয়মিত ফলো করুন 10 Minute School এর অফিসিয়াল পেইজ এবং সেই সাথে যোগ দিন 10 Minute School Live! গ্রুপটিতে।

শুধু উপায় জানাই যথেষ্ট নয়। নেমে পড়ুন কাজে এবং সেই সাথে ফলো করতে থাকুন ১০ মিনিট স্কুলের পেইজটি।  সেই পর্যন্ত সবার জন্য রইলো শুভ কামনা।


১০ মিনিট স্কুলের লাইভ এডমিশন কোচিং ক্লাসগুলো অনুসরণ করতে সরাসরি চলে যেতে পারো এই লিঙ্কে: www.10minuteschool.com/admissions/live/

১০ মিনিট স্কুলের ব্লগের জন্য কোনো লেখা পাঠাতে চাইলে, সরাসরি তোমার লেখাটি ই-মেইল করো এই ঠিকানায়: [email protected]

লেখাটি ভালো লেগে থাকলে বন্ধুদের সঙ্গে শেয়ার করতে ভুলবেন না!
What are you thinking?