উচ্চশিক্ষায় রিকমেন্ডেশন লেটার কেন? কিভাবে? (পর্ব – ২)

গত পর্বে আমরা রেকমেন্ডেশন লেটার নিয়ে, এর প্রয়োজনীয়তা নিয়ে, লেখার আগে বা পরে কি করতে হবে তা নিয়ে জেনেছি। এবার চলো জেনে নিই রিকমেন্ডেশন লেটার লেখার আরো কিছু বিষয় সম্পর্কে।

একটি সুগঠিত রিকমেন্ডেশন লেটার এ যা যা থাকবে :

  তোমার জন্য যদি তোমার শিক্ষক রিকমেন্ডেশন লেটার লিখেন তাহলে সেই  লেটারটি  সুগঠিত হবে তখনি, যখন লেটার্টিতে নিচের গুণাবলীগুলো থাকবে।

 ১) তোমার রিকমেন্ডার তোমাকে কিভাবে চিনেন  বা   আরো গুছিয়ে বললে, তোমার কোন সব গুণ বা কাজের জন্য তিনি এখনও তোমাকে মনে রেখেছেন সেই কারণটি একটি ঘটনার মাধ্যমে লিখা থাকতে হবে।

২) তোমার কোনও গুণ যদি তিনি উল্লেখ করতে চান, তাহলে শুধুমাত্র সে গুনটির কথা বললেই হবে না। উল্লেখ থাকতে হবে ঠিক কোন ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে  তার মনে হলো তোমার সেই গুণটি আছে। যেমন, তোমাকে যদি তোমার শিক্ষকের তোমাকে সৎ মনে হয় তাহলে তাকে অবশ্যই সেই ঘটনাটি বলতে হবে  যেখানে তুমি তোমার সততার পরিচয় দিয়েছিলে। অন্য শিক্ষার্থীদের থেকে তোমার পার্থক্য কোথায় সে ক্ষেত্রেরও একটা ঘটনা উল্লেখ করতে হবে।

দারুণ সব লেখা পড়তে ও নানা বিষয় সম্পর্কে জানতে ঘুরে এসো আমাদের ব্লগের নতুন পেইজ থেকে! The 10-Minute Blog!

 এতো গেল গুণাবলী ও তোমাকে আলাদা মনে  হওয়ার ব্যাপার। কিন্তু তোমার যে সব ক্ষমতা ও কর্মদক্ষতা আছে যার কারণে ভবিষ্যতেও তুমি তোমার ধারাবাহিকতা বজায় রাখবে, সেসব কথাও  রিকমেন্ডেশন লেটার এ থাকতে হবে। আর তাই এই অবস্থাটা সুনিশ্চিত করার জন্যও ভালো কিছু উদাহরণ তিনি দিতে পারেন। রিকমেন্ডেশন লেটার এর গঠনটাকে আমরা অনেকটা এভাবে লিখতে  পারি,

                  Structure =  fact +  story

আরেকটি  ব্যাপার লক্ষ রাখতে হবে যে, তোমার  রিকমেন্ডেশন লেটারটি যেন একদমই Generic বা   গদবাঁধা না হয়ে যায়। আসলে খুব কমন কিছু রিকমেন্ডেশন লেটার এর নমুনা গুগলে পাওয়া যায়  আবার শিক্ষকদের কাছে এই লেটারের কিছু গদবাঁধা   টেমপ্লেটও থাকে। অনেকেই করেন কি সেসব টেমপ্লেটে   শিক্ষার্থীর নামটি বসিয়ে কাজ চালিয়ে দেন। এই ভুল  যেন কখনোই না হয় কারণ এতে  হিতে বিপরীত  হতে পারে। যেমন, “ A “  is a  very  hard working   and   helpful boy. He is  also very well behaved  and sincere to his   studies. He got  5 As / GPA 5.0. He Will be a great asset to any institution.

  এই ধরনের লেটারগুলো সত্যিকার অর্থে তেমন গ্রহণযোগ্য নয়। কেননা তোমার শিক্ষাগত যোগ্যতা কি, তা তোমার একাডেমিক ট্রান্সক্রিপ্ট থেকেই কর্তৃপক্ষ জেনে থাকেন। এডমিশন কমিটি কিন্তু এখান থেকে নতুন কিছু জানছেন না এবং যে গুণ গুলোর কথা বলা হয়েছে তার সত্যতা কতটুকু সেটি প্রমানের কোন গল্প এখানে নেই। এ ধরনের একটি রিকমেন্ডেশন  লেটার দেখলে এডমিশন কমিটির তোমার প্রতি একটি বিরূপ ধারণা কিন্তু হতেই পারে।

  ৩) তোমার রিকমেন্ডেশন লেটারে যেন কোন   অসততার ছাপ না থাকে। তুমি হয়তো ভাবতে পারো  তোমার জীবনে বৈচিত্রময় তেমন কোনো ঘটনা নেই। কিন্তু তাই বলে অসৎভাবে এমন কিছু ঘটনা লিখে দিও না, যা এডমিশন কমিটি তোমার লেখাটি পড়েই বুঝে ফেলেন। প্রত্যেকটা মানুষেরই আসলে নিজস্ব কিছু গল্প থাকে। সময় নাও, ভেবে দেখো তোমার সেই গল্প গুলো কী কী? যেমন তুমি হয়তো প্রতিদিন খুব সকালে স্কুলে যেতে এরপর কোচিং করে বাসায় ফিরতে ফিরতে তোমার সন্ধ্যা হয়ে যেত। এর মাঝে বাইরে কোথাও তোমার দুপুরের খাবারটা খেতে হয়েছে। এই গল্পটা কিন্তু তুমি দিতে পারো। তোমার কাছে এ গল্পটি খুব স্বাভাবিক হলেও এডমিশন কমিটির কাছে এটা একটা  স্টুডেন্টের  স্ট্রাগলের গল্প হতে পারে।

একটি সুগঠিত রিকমেন্ডেশন লেটার এর নমুনা :

 ধরো  “A”  একজন  শিক্ষার্থী, যে কিনা  ইঞ্জিনিয়ারিং এ আন্ডার গ্রাজুয়েশন করার জন্য  বিদেশে উচ্চশিক্ষা নিতে চায়। এক্ষেত্রে তার রিকমেন্ডেশন লেটারটি  কেমন হবে চলো দেখে নেই।

Dear Admissions Committee,

It  is a great pleasure to recommend “A”  for  admission to your engineering program. She is one of the most exceptional students I have ever encountered in my 15 years of teaching. I used to taught  “A” physics in her 10th class and advised her in Robotics Club. I am not surprised to find out she is now ranked at the top of an extraordinarily capable class of seniors. She has a keen interest in and talent for physics,math and scientific inquiry. Her advanced skills and passion for the subject make her ideal fit for your rigorous engineering program.

‘’A’’   is a perceptive, Sharp, quick individual  with a high aptitude for Math and Science. She is driven to understand how things work, whether they be the old computer hard drives in the school library or the forces  that  hold our universe together. Her final project  in class was especially impressive, an  investigation of frequency dependent sound  absorption, an Idea  that she said was sparked by not wanting to bother her parents with her hours of guitar practice  at home.  She’s been a strong leader in  Robotics club, eager to share her Knowledge  with others and learn new skills. I have the students. In the club prepare lessons  and take turns leading our after school meetings. When  it was  her turn, she  showed up  prepared with a fascinating lecture on Lunar nautics and fun activities  that got everyone  moving and talking. She was our only student to be met with  much deserved applause at the end of her lesson.

‘’A’’s  personal strengths are as Impressive as her intellectual accomplishments. She is the perfect person to get a group project rolling, but she also knows how to sit back and let others take the lead. Her cheerful  nature  and  openness  to feedback means  she is always learning and growing as a learner, an  impressive  strength that will  continue  to serve her well in college  and beyond. She is just the kind of driven, engaging and curious student that helped make our classroom a lively environment and safe place to take intellectual risks.

She has my highest recommendation for admission to your engineering program. She has demonstrated excellence in all that she puts her mind  to,whether its designing an experiment, collaborating with others, or  teaching herself to play classical and electrical guiter. Her endless curiosity, combined with her willingness to take risks, leads me to believe there will be no limit  to her growth and achievements in college and beyond. Please don’t hesitate to contact me at xyz@gmail.com if you have any questions.

Sincerely,

Name of the teacher

Name of the subject

Name of the institution

বেরিয়ে এসো নিজের খোলস থেকে!

প্রেজেন্টেশন দিতে গেলে প্রায়ই আমরা নার্ভাস হয়ে পড়ি, তারপর জঘন্য প্রেজেন্টেশন দিয়ে ডিপ্রেশনে ভুগি। এ সমস্যার সমাধানের জন্যে রয়েছে দারুণ কিছু বুদ্ধি!
আরও জানতে নিজেই ঘুরে এসো ১০ মিনিট স্কুলের এক্সক্লুসিভ এই প্লে-লিস্টটি থেকে।

১০ মিনিট স্কুলের Presentation Skills সিরিজ

 

রেকমেন্ডেশন লেটার কিভাবে পাঠাব :

 এক্ষেত্রে দু ধরনের পদ্ধতি অবলম্বন করা হয়-

★ অনলাইন সাবমিশন

★ অফলাইন সাবমিশন

    বেশিরভাগ বিশ্ববিদ্যালয়  অনলাইন সাবমিশনের প্রক্রিয়াটিকে বেশি প্রাধান্য দিয়ে থাকে। যেকোনো রিকমেন্ডেশন লেটারই আসলে তোমাকে যে প্রতিষ্ঠানে  পড়তে চাও সেই প্রতিষ্ঠানের লেটার হেড এ লিখতে  হবে। মানে হচ্ছে লেটারটির শুরুতেই সেই প্রতিষ্ঠান  এর নাম ও মনোগ্রাম থাকতে হবে। এরকম পেইজে  যদি লেটারটি না লেখা হয় তাহলে সেটা অফিশিয়াল হবে না। তোমার যে কমন অ্যাপ্লিকেশন বা  অ্যাপটি  থাকবে সেখানে তোমার রেকমেন্ডেশন লেটার গুলো  লেখা হয়ে গেলে তুমি সেগুলো আপলোড করে দিতে  পার। কিন্তু কিছু কিছু  বিশ্ববিদ্যালয় আবার  আপলোড করা লেটার গ্রহণ করে না। তাদের কে তোমার রিকমেন্ডেশন লেটার টি মেইল বা ফ্যাক্স করে দিতে হবে।

 কিভাবে আপলোড করবে?

 প্রথমেই তুমি তোমার কমন অ্যাপটিতে    রিকমেন্ডরকে সাইনআপ করার জন্য ইমেইলে  ইনভাইট করবে। এরপর  তারা ইনভিটেশনটা গ্রহণ  করে কমন অ্যাপটিতে নিজেদের একটি অ্যাকাউন্ট খুলে নিবেন। সেই একাউন্টে রেকমেন্ডেশন লেটারটি  লিখে আপলোড করতে হবে। আপলোড করার পর  অবশ্যই সাবমিট করতে ভুলো না যেন!

পাওয়ারপয়েন্ট ব্যবহার করে অনেক গুরুত্বপূর্ণ কাজ সেরে ফেলা যায়! তাই, আর দেরি না করে ১০ মিনিট স্কুলের এক্সক্লুসিভ এই প্লে-লিষ্টটি থেকে ঘুরে এসো, এক্ষুনি! শিখে ফেল পাওয়ারপয়েন্টের জাদু!

  কিভাবে  সাবমেইলের মাধ্যমেমিট করবে?

মূলত তুমি যে বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে চাও  তোমাকে সেই বিশ্ববিদ্যালয় এর সাইটে গিয়ে তোমার রেকমান্ডারের নাম, ইমেইল অ্যাড্রেস সাবমিট করতে হবে। এরপর সেই বিশ্ববিদ্যালয়ের সাইট থেকে একটা অটোমেটেড মেইল তোমারে রেকমান্ডার শিক্ষকের মেইল বক্সে চলে আসবে। এরপর  তোমার রেকমান্ডারকে যা করতে হবে তা হল, মেইলে যে পেইজের লিংক দেয়া থাকবে সে লিংকে গিয়ে তার নিজের কিছু তথ্য দিতে হব। এরপর তাকে লেটারটি লিখে এডমিশন কমিটির ঠিকানায় পাঠিয়ে  দিতে হবে।

এবার আসি অফলাইন   সাবমিশনের ব্যাপারে। এক্ষেত্রে যিনি তোমার রেকমেন্ডার তিনি লেটারটি লিখে তাতে নিজের পরিচয় ও সাইন করে চিঠিটি  একটি খামে ভরে ফেলবেন। এরপর সেই খামটির উপরে তার সিল এবং সাইন করে তোমাকে দিয়ে দিবেন। আর এরপর তুমি তা পাঠিয়ে দিবে নিজ দায়িত্বে। তবে বর্তমানে অনলাইন সাবমিশনটাই  জনপ্রিয় ও গ্রহণযোগ্য। একটি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে  আরেকটি বিশ্ববিদ্যালয় রিকমেন্ডেশন লেটার  অনলাইনে সাবমিট করার নিয়মে কিছু তারতম্য থাকে। এক্ষেত্রে তুমি যে বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে চাও, সেখানকার অনলাইন সাবমিশনের প্রক্রিয়াটি কেমন, তা লেটারটি পাঠানোর আগে ভালো করে দেখে নিও।

        রিকমেন্ডেশন লেটার তো পাঠানো হয়ে গেল, এখন শুধু  অপেক্ষার পালা। আর এই অপেক্ষার অবসান  ঘটিয়ে হয়তো কোনো একদিন  চলে আসতে পারে, সেই কাঙ্খিত বিশ্ববিদ্যালয় বা প্রতিষ্ঠান থেকে  তোমার ডাক!

References:

  1. https://resumegenius.com/letter-of-recommendation
  2. https://blog.prepscholar.com/4-amazing-recommendation-letter-samples 
  3. https://www.thoughtco.com/getting-recommendation-letters-for-grad-school-1684902 
  1. https://www.youtube.com/watch?v=M39XEE3QoNI 
  2. https://www.youtube.com/watch?v=ivscdytNSBM 

১০ মিনিট স্কুলের লাইভ এডমিশন কোচিং ক্লাসগুলো অনুসরণ করতে সরাসরি চলে যেতে পারো এই লিঙ্কে: www.10minuteschool.com/admissions/live/

১০ মিনিট স্কুলের ব্লগের জন্য কোনো লেখা পাঠাতে চাইলে, সরাসরি তোমার লেখাটি ই-মেইল কর এই ঠিকানায়: write@10minuteschool.com

লেখাটি ভালো লেগে থাকলে বন্ধুদের সঙ্গে শেয়ার করতে ভুলবেন না!
Author

Tajruba Orpee

A person who believes in simplicity and is grateful for everything. Can easily be called a bookworm and a foodie. Passionate about writing and loves to spead positivity. Currently studying at the department of EEE, Ahsanullah University of Science and Technology.
Tajruba Orpee
এই লেখকের অন্যান্য লেখাগুলো পড়তে এখানে ক্লিক করুন
What are you thinking?