টাকা ফুরোয় দেদারসে? সঞ্চয় করো সহজেই!

পুরোটা পড়ার সময় নেই? ব্লগটি একবারে শুনে নাও!

মাত্র এক বছর হলো কলেজে পা রেখেছে দিয়া মফস্বলে বড় হওয়া মেয়ে এই প্রথম মাবাবাকে ছেড়ে এত বড় শহরে একা থাকছে বান্ধবীদের অলক্ষ্যে আস্তে করে নিজের পার্সটা খুলে দেখলো দিয়া নাহ! একদমই হাত খালি তার, একটুও টাকা নেই কেন যে বান্ধবীদের জোরাজুরিতে সবাইকে খাওয়ানোর জন্য রাজি হলো? এখন তার আসলেই অনেক আফসোস হচ্ছেইশ! একটু যদি টাকাগুলো হিসেব করে খরচ করতাম

এইইশযেন আমাদের নিত্যদিনের সঙ্গী আমরা সবসময়ই এই শব্দটা ব্যবহার করি ব্যবহার করি বললে ভুল হবে, ব্যবহার করতে বাধ্য হই কেননা আমরা নিজেরাই নিজেদেরকে এমন কঠিন অবস্থায় ফেলে দিই

দারুণ সব লেখা পড়তে ও নানা বিষয় সম্পর্কে জানতে ঘুরে এসো আমাদের ব্লগের নতুন পেইজ থেকে!

ছাত্রজীবন আমাদের জীবনের এমনই এক অধ্যায়, যেখানে আমরা অনেকেই আশেপাশের মানুষদের সাথে তাল মেলাতে যেয়ে, নিজেরাই বেতাল হয়ে পড়ি! জীবনের এই অংশে প্রায় সবাইকে মাবাবার টাকা দিয়েই মাস চালাতে হয় নিজেদের কোনো স্থায়ী উপার্জনের পথ থাকে না বিধায় আমাদের উচিত ছাত্রজীবনেই টাকা সঞ্চয় করার অভ্যাস গড়ে তোলা শুধু কিছু ছোট ছোট পদক্ষেপ গ্রহণ করলেই নিজের পকেটফুলরাখা সম্ভব একটু বুদ্ধি খাটিয়ে টাকা ঠিকমত খরচ সঞ্চয় করলেই মাস শেষেও ভাল পরিমাণের টাকা হাতখরচ হিসেবে থেকে যায়

ঘুরে আসুন: ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার – আল্টিমেট গাইডলাইন সবার জন্য

সবাই একসাথে থাকা :

গ্রাম কিংবা মফস্বল থেকে শহরে পড়তে আসা অনেক ছাত্রছাত্রী প্রথমেই অর্থসংকটে ভোগে। কারণ, শহরে আসা মাত্রই পানির মতন টাকা হাতের ফাঁক দিয়ে গলগল করে বেরিয়ে যায় তাই নিজের সমবয়সী, বিশেষ করে একইসাথে পড়ছে এমন কয়েকজনকে জুটিয়ে একসাথে কোনো ফ্ল্যাট ভাড়া নেওয়া যেতে পারে এতে করে ফ্ল্যাটের ভাড়াটা সবাই ভাগাভাগি করে দিতে পারবে, কোনো একজনের উপর সম্পূর্ণ চাপ পড়বে না তবে একসাথে থাকার ক্ষেত্রে রুমমেটদের সুবিধা অসুবিধাগুলোও দেখতে হবে বাইরে যাওয়ার আগে রুমের লাইট, ফ্যান এবং পানির কল বন্ধ করতে ভুলবে না কেননা এগুলো আমরা যত বেশি অপচয় করবো, বিদ্যুৎ এবং পানির বিল তত বেশিই আসবে

আর নয় ফেসবুকে সময় নষ্ট!

ফেসবুকে সময় নষ্ট করলে পড়ালেখার ভালোই ক্ষতি হয়। কৌশলমতো পড়ালেখা না করলেও সমস্যা। তাহলে উপায়?

দেখে নাও আজকের প্লে-লিস্টটি আর শিখে নাও কিভাবে এসব থেকে বের হয়ে সাফল্য পাওয়া যায়!

১০ মিনিট স্কুলের Life Hacks সিরিজ

বাজেট তৈরি :

মাসের শুরুতেই একটা বাজেট তৈরি করে ফেলো না! বাড়ি ভাড়া, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বেতন, খাবার খরচ সবকিছু একটা ছক আকারে লিখে ফেলো এতে করে মাসে কত টাকা খরচ হবে সেটা সহজেই বোঝা যাবে

সেকেন্ডহ্যান্ড জিনিস কেনা :

কলেজ এবং ভার্সিটিতে আমাদের একই বিষয়ের কয়েক রাইটারের বই কিনতে হয় বাড়ির আশেপাশে কিংবা ঢাকার নীলক্ষেতে অসংখ্য পুরাতন বইয়ের দোকার রয়েছে যেখানে একদম কম মূল্যে টাটকা সেকেন্ডহ্যান্ড ( কিংবা বেশ কয়েক হ্যান্ড!) বই মিলবে সেমিস্টার শেষে চাইলেই এই বইগুলো এসব পুরোনো বইয়ের দোকানগুলোতে বিক্রি করে দেওয়া যাবে

কোনো সমস্যায় আটকে আছো? প্রশ্ন করার মত কাউকে খুঁজে পাচ্ছ না? যেকোনো প্রশ্নের উত্তর পেতে চলে যাও ১০ মিনিট স্কুল লাইভ গ্রুপটিতে!

বইয়ের মতনই খরচ বাঁচাতে  অন্যান্য অনেক জিনিস যেমন ইয়ারফোন, চার্জার, মুঠোফোনও সেকেন্ডহ্যান্ড কেনা যায় হয়তো পূর্বের ব্যবহারকারী বেশ কয়েকমাস এগুলো ব্যবহার করেছে, কিন্তু তাই বলে এগুলো একেবারে অকেজো হয়ে যায় নি একটু ঘষামাজা করলেই আবার একদম নতুন জিনিসের মতন এগুলো চকচক করতে থাকবে সেই সাথে টাকাও সঞ্চয় করা যাবে

অযথা বাইরে খাওয়ার অভ্যাস কমানো :

দোস্ত, আজকে কিন্তু আমাকে খাওয়াতেই হবে“, “ মামা! ট্রিট দে“, “ এই কিপটা, আমাদেরকে খাওয়াস না কেন?”- কথাগুলো নিশ্চয়ই তোমাদের কাছে অপরিচিত ঠেকেনি? এই লাইনগুলো তো আমরা হরহামেশাই শুনে থাকি পকেটে কিছু না থাকলেও লজ্জার চোটে বন্ধুদেরকে দামি রেস্তোরাঁয়ট্রিটদিই নিজেকে তো অন্য বন্ধুদের তুলনায় বড় দেখাতে হবে!

কিন্তু এই বড় দেখানোর প্রতিযোগিতায় আমরা এতটাই নিমগ্ন হয়ে পড়ি যে পকেটের দিকে আর খেয়ালই থাকে না আর যখন খেয়াল হয়, তখন কিছু করার উপায় থাকে না মাস পুরো হওয়ার আগেই মাবাবার কাছ থেকে টাকা চাওয়াও যায় না তাই যত জলদি পারা যায়নাবলতে শেখো ভাল বন্ধুরা কখনোই অবস্থা না বুঝে দামি জায়গায় খাওয়ার জন্য জোর করবে না তবে বিশেষ কোনো উপলক্ষ্য, যেমন জন্মদিনে খাওয়ানো অবশ্যই যেতে পারে তবে তা যেন সাধ্যের বাইরে না যায় কেননা বন্ধুদের কাছে হিরো হওয়ার চেয়ে নিজের পুরো মাসের খরচ টানা বেশি জরুরি

মুঠোফোনের সঠিক ব্যবহার :

মুঠোফোনের নানান ব্যবহার রয়েছে সেই সাথে এর যেমন ভাল দিক রয়েছে, তেমনি খারাপ দিকও রয়েছে এটা আমাদের যোগাযোগব্যবস্থা এতটাই সহজ করে দিয়েছে যে আমরা পৃথিবীর যেকোনো প্রান্তের মানুষদের সাথে মুহূর্তেই যোগাযোগ করতে পারি কিন্তু তাই বলে ফোনের ব্যালেন্স শেষ না হওয়া পর্যন্ত তো বকবক করা চলে না দরকারি কথাটা বলেই অপর প্রান্তে থাকা ব্যক্তির অনুমতি নিয়ে ফোনের লাইন কেটে দেয়া ভাল আর বাইরের দেশে থাকা কারো সাথে কথা বলতে হলে ভাইবার, মেসেঞ্জার‍, ইমোএইসব অ্যাপ দিয়ে ফ্রি অডিও বা ভিডিও কল দেওয়া যেতে পারে এতে করে ফোনের টাকাও বাঁচবে, সেই সাথে পকেটের টাকাও!

ডিসকাউন্ট অফার চেক করা :

আজকাল স্টুডেন্টদের জন্য বিভিন্ন জায়গায় ডিসকাউন্ট থাকে যেমন: ‘অমুকব্রান্ডের পোশাকে ২০৩০% স্টুডেন্ট ডিসকাউন্ট, ‘তমুকরেস্তোরাঁয় স্টুডেন্ট লাঞ্চ প্যাক মাত্র ১০০ টাকায় ইত্যাদি এসব জায়গা থেকে কেনাকাটা করলে অনেক বেশি টাকা সঞ্চয় হবে, সেই সাথে প্রয়োজনীয় জিনিসও কেনা হয়ে যাবে

নিয়মিত ক্লাসে উপস্থিত থাকা :

একটা কথা সবসময়ই মনে রাখতে হবে যে আমরা টাকা অর্থাৎ বেতন দিচ্ছি এই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পড়ার জন্য অর্থাৎ বিনে পয়সায় পড়ছি না তাই ক্লাস ফাঁকি দেওয়াটা চূড়ান্ত পর্যায়ের বোকামি হবে অনেকটা টাকা জানালা দিয়ে ফেলে দেওয়ার মতন তাই নিয়মিত ক্লাসে উপস্থিত থেকে পড়াশুনা করলে টাকাটা মাটি হবে না

অতিরিক্ত যানবাহন খরচ কমানো :

টাকা সঞ্চয় করতে ট্যাক্সি, সিএনজি কিংবা হালের উবার, পাঠাও এগুলো এড়িয়ে চলা উচিত ছাত্রজীবনে এইসবের বিলাসিতা না করলেও চলবে এইগুলোর বদলে বাসে চলাচল করলে ভাল হয় আর বাসে স্টুডেন্টদের হাফ ভাড়া হলে তো কথাই নেই! মোটরসাইকেল না কিনে বাইসাইকেল কেনা উচিত তেল বা জ্বালানীর খরচ কমবে, সেই সাথে শরীরের বাড়তি মেদও এছাড়াও এই যানজটের ব্যস্ত নগরীতে সাইকেলের চাইতে ভাল যানবাহন আর কিছু হতে পারে না

ফ্রীওয়্যার ব্যবহার :

আমরা অনেকেই টাকা দিয়ে ফোন বা পিসির অ্যাপগুলো কিনে থাকি বা আপগ্রেড করে থাকি আর মজার ব্যাপার হচ্ছে, এরমধ্যে বেশিরভাগই করা হয় গেম খেলার জন্য শুধু গেম খেলার জন্য টাকা খরচটা বেমানান আমরা মাইক্রোসফট অফিসের সফটওয়্যারগুলো দিয়ে ওয়ার্ডের কাজ করতে পারি, সিভি তৈরি করতে পারি, কার্টুন অ্যানিমেশন বানাতে পারি, প্রেজেন্টেশনও তৈরি করতে পারি! এছাড়াও বিভিন্ন ভাল মানের ফ্রী এন্টিভাইরাস দিয়ে পিসি বা ল্যাপটপকে সুরক্ষিত রাখা যায় মুভি দেখতে হলে Bit Torrent আর সাউন্ড এডিটিং এর কাজের জন্য Audacity-তো রয়েছেই সেই সাথে Adobe Acrobat-এর ফ্রী ভার্সন PDF Creator দিয়েও PDF তৈরি করা যায় এসবের জন্য অতিরিক্ত টাকা খরচ করাও লাগবে না

ধার দেওয়া, ধার নেওয়া :

মাস শেষ হতে যখন আর এক সপ্তাহ বাকি, তখন মানিব্যাগ খুললে দেখা যায় খুচরো দুপাঁচ টাকার নোট ব্যাগের ফুটো দিয়ে উঁকি মারছে মাস পার করানোর শেষ উপায় হিসেবে বন্ধুর কাছে হাত পাততে হয় তবে বন্ধুর কাছ থেকে টাকা নেওয়ার সময় মনে রাখতে হবে যে টাকা অবশ্যই ঠিকসময়ে ফেরত দিতে হবে একই কথা কাউকে ধার দেওয়ার সময়ও প্রযোজ্য

টাকা সঠিকভাবে সঞ্চয়কারীদেরকে ‘কিপটে’ বলে না, মিতব্যয়ী বলে

বন্ধুত্বের খাতিরে যখনতখন ধার নেওয়া বা চাওয়াটা ঠিক নয় কেননা যার কাছ থেকে টাকা ধার নিবে, তার আর্থিক অবস্থা হয়তো অতটাও ভাল নয় তারও তো টাকার দরকার হতে পারে তাই কারো কাছ থেকে টাকা ধার নেওয়ার বেলায় নির্দিষ্ট সময়ের আগেই যেন তা ফেরত দেওয়া হয়

ঘুরে আসুন: পাওয়ারপয়েন্ট প্রেজেন্টেশনের ১০টি কার্যকরী টিপস

পার্টটাইম জব জোগাড় করা :

আজকাল পড়াশুনার পাশাপাশি নানানভাবে টাকা আয় করা যায় টিউশনি করে, কোনো দোকানের সেলসম্যান হিসেবে, লিখালিখি করে, আউটসোর্সিং বা ফ্রিল্যান্সিং করে খুব সহজে যোগ্যতা থাকলেই অর্থ উপার্জন করা যায় এতে করে নিজের হাতখরচেরও একটা ব্যবস্থা হয়ে যাবে, পাশাপাশি পরিবারকে সাহায্যও করা যাবে

এইরকম কিছু ছোট ছোট উদ্যোগ নিলেই বেশ ভাল পরিমাণের টাকা সঞ্চয় করা যাবে টাকা সঠিকভাবে সঞ্চয়কারীদেরকেকিপটেবলে না, মিতব্যয়ী বলে দুতিন মাস পর যখন দেখা যাবে যে হাতে বেশ খানিকটা টাকা জমে আছে, তখন নিজের মতন করে একটু উদযাপন তো করা যায়ই!

এই লেখাটির অডিওবুকটি পড়েছে মনিরা আক্তার লাবনী


১০ মিনিট স্কুলের লাইভ এডমিশন কোচিং ক্লাসগুলো অনুসরণ করতে সরাসরি চলে যেতে পারো এই লিঙ্কে: www.10minuteschool.com/admissions/live/

১০ মিনিট স্কুলের ব্লগের জন্য কোনো লেখা পাঠাতে চাইলে, সরাসরি তোমার লেখাটি ই-মেইল কর এই ঠিকানায়: [email protected]

লেখাটি ভালো লেগে থাকলে বন্ধুদের সঙ্গে শেয়ার করতে ভুলবেন না!
What are you thinking?