বিশ্ববিদ্যালয় জীবন: To Do or Not To Do?

বিশ্ববিদ্যালয় এক বিশাল জায়গা। বিভিন্ন স্থানের বিভিন্ন মানুষ পাড়ি জমাবে উচ্চশিক্ষার উদ্দেশ্যে, সবার মতামত এবং চিন্তাধারা একরকম না-ই হতে পারে। অনেকের জন্যেই বিশ্ববিদ্যালয়ে খাপ খাওয়ানো হয়ে পড়ে কঠিন। তাই তোমরা যারা প্রথম বর্ষের ক্লাস শুরু করতে যাচ্ছো, তাদের জন্যে থাকছে কিছু উপদেশ

কী করা উচিত, কী করা উচিত নয়, আর সবার সাথে কীভাবে সুন্দরভাবে মিলেমিশে থাকা যায় – এসো দেখে নিই।

খুব তাড়াতাড়ি গণনা করতে পারা যে কোন বিভাগের শিক্ষার্থীর জন্যই অনেক গুরুত্বপূর্ণ। আর তাই ১০ মিনিট স্কুল তোমাদের জন্যে নিয়ে এসেছে Beat the Numbers!

১। মনের দরজা খোলা রাখো

বিশ্ববিদ্যালয় মানেই ভিন্ন ভিন্ন মানুষের একসাথে হওয়া। তুমি হয়তো তোমার নিজের জগত থেকে পুরোপুরি ভিন্ন কিছু মানুষকে দেখবে, অথবা এমন কিছু মানুষ পাবে যাদের চিন্তাধারা তোমার থেকে পুরোপুরি ভিন্ন। তাই বলে দমে গেলে চলবে না।

নিজের মনোভাব উদার রাখো। তুমি ইংলিশ মিডিয়ামের বলেই যে মাদ্রাসার ছাত্রটির সাথে তোমার মিলবে না, তা কিন্তু নয়। তুমি মফস্বলের হলেও যে ঢাকার ছেলেমেয়েরা তোমার বন্ধু হতে পারবে না, তাই বা কোথায় লেখা আছে? সহজভাবে সবার সাথেই মেশো, ভালো আচরণ করো। সবার কাছেই কিছু না কিছু শেখার আছে।

২। বইপত্র কিনতে অধীর হয়ো না

প্রথম ক্লাসের পরেই অনেককে দেখা যায়, বইয়ের দোকানের দিকে ছুট! অথবা সেমিনারে-লাইব্রেরিতে গিয়ে বই খুঁজে বের করবার জন্যে অস্থিরতা। সত্যি বলতে কী, এটি খুবই ভুল কাজ। আর বই জিনিসটার দামও কিন্তু কম নয়!

ঘুরে আসুন: ভার্সিটি জীবন গড়ে উঠুক সৃষ্টিশীল কাজে

প্রত্যেক শিক্ষকের পড়ানোর ধরণ আলাদা। আগে তিনি কীভাবে পড়াচ্ছেন, পরীক্ষায় তোমার কাছ থেকে কী আশা করেন – এই বিষয়গুলো বোঝার চেষ্টা করো। তারপর বইয়ের দোকানে কোন কোন বই তোমার সত্যিই কাজে লাগবে, আর ক’টা বই তুমি শেষ করতে পারবে, সেটার লিস্ট করো। তারপর সে বইগুলো কিনে ফেলো – খালি পরীক্ষা নয়, দেখা যাবে ছাত্রজীবন শেষেও বইগুলো কাজে লাগছে।

একটা জিনিস সতর্ক করা দরকার – বই দেরিতে কেনা মানে এই না যে, পড়াশুনা করবে না তুমি। বই না কিনে থাকলেও ক্লাসে মনোযোগ দিতে ভুল কোরো না, লেকচার তোলার চেষ্টা কোরো সাধ্যমত। পড়াশুনার সংস্পর্শে না থাকলে কোনো বইই ঠিক করে সাহায্য করতে পারবে না তোমাকে।

৩। নতুন অভিজ্ঞতা অর্জন করতে ভুলো না

জীবনের একটা নতুন পরিচ্ছেদ বিশ্ববিদ্যালয়। এখানে নতুন নতুন জিনিস প্রতিনিয়ত দেখতে থাকবে তুমি, আর নতুন নতুন মানুষের সাথে পরিচয় হবার জন্যে কিছু নতুন জিনিস চেষ্টা করে দেখার বিকল্প নেই। খেলাধুলা বা এক্সট্রা-কারিকুলার কাজ থেকে দূরে সরে যেও না। কোন জিনিস ভালো লেগে থাকলে সরাসরি যোগ দিয়ে ফেলো।

সব করতে গিয়ে বেশি ব্যস্ত হয়ে যেও না

বিভিন্ন ক্লাবে জয়েন করো, ফেস্টিভালে যাও, স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনে কাজ করো। সবখান থেকেই তুমি একেকটা নতুন অভিজ্ঞতার স্বাদ পাবে, আর পরিচয় হবে নতুন নতুন মানুষের সাথে। এই মানুষগুলো যেকোন সময় যেকোনভাবে উপকারে আসতে পারে।

সবচেয়ে বড় কথা, এ কাজগুলো করে তুমি যে স্মৃতিময় সময়গুলো পাবে, বাকি জীবন রোমন্থন করে কাটিয়ে দেবার জন্যে যথেষ্ট!

আবিষ্কার করো পাওয়ারপয়েন্ট এর খুঁটিনাটি!

পাওয়ার পয়েন্টকে এখন আমাদের জীবনের অনেকটা অবিচ্ছেদ্য একটা অংশ বলা যায়। ক্লাসের প্রেজেন্টেশান বানানো কী বন্ধুর জন্মদিনের ব্যানার। সবক্ষেত্রেই এর ব্যাপক ব্যবহার।

তাই ১০ মিনিট স্কুল তোমাদের জন্য নিয়ে এসেছে পাওয়ার পয়েন্টের এক আকর্ষণীয় প্লে-লিস্ট!
১০ মিনিট স্কুলের পাওয়ার পয়েন্ট সিরিজ!

৪। খুব বেশি ব্যস্ত হয়ে যেও না

উপরের সবগুলো কাজই যদি তোমার মনে ধরে থাকে, তাহলে ধরে নাও এটা সাবধানবাণী – সব করতে গিয়ে বেশি ব্যস্ত হয়ে যেও না!

ঘুরে আসুন: বিশ্ববিদ্যালয় জীবনে পদার্পণের কথকতা: সাফল্যের স্বর্ণসূত্র

বিশ্ববিদ্যালয় অনেক বেশি জীবনীশক্তি আর পরিশ্রম ডিমান্ড করে একজন মানুষের কাছ থেকে। অনেকগুলো বিষয়ে সর্বোচ্চ প্রচেষ্টাটা দিতে দিতে একসময় ক্লান্ত হয়ে পড়াটা স্বাভাবিক। আর এই সময় সবারই দরকার কিছু ব্যক্তিগত সময়। নিজেকে সময় দেয়া, নিজের যত্ন নেয়া, আর একটা ব্রেক নেয়ার মতো সময় যেনো হাতে থাকে।

৫। ক্লাসে নিয়মিত হও

বিশ্ববিদ্যালয়ে সবচেয়ে কঠিন কাজ কোনটা জিজ্ঞেস করলে প্রায় সবাই বোধহয় বলবে, ক্লাস করা। সকাল থেকে দুপুর রুটিনে অভ্যস্ত হয়ে যাওয়ায় আমাদের সবারই ক্লাসের সাথে মানিয়ে নিতে কষ্ট হয়। অনেকে ক্লাস বাংক দিয়ে আড্ডা দিতে, বা অন্য কাজ করাকে শ্রেয়তর মনে করে।

কোনো সমস্যায় আটকে আছো? প্রশ্ন করার মত কাউকে খুঁজে পাচ্ছ না? যেকোনো প্রশ্নের উত্তর পেতে চলে যাও ১০ মিনিট স্কুল লাইভ গ্রুপটিতে!

নিয়মিত ক্লাস করার কোন বিকল্প নেই। শিক্ষকেরা ক্লাসে যা পড়াবেন, তা তাদের বছরের পর বছর ধরে অর্জন করা অভিজ্ঞতার সম্বল। ক্লাসে যে দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে আলোচনা হবে, তা কোনো বইতে উঠে নাও আসতে পারে। তাই ক্লাসে নিয়মিত হবার কোন বিকল্প নেই।

সবার বিশ্ববিদ্যালয় জীবন আনন্দের হোক!


১০ মিনিট স্কুলের লাইভ এডমিশন কোচিং ক্লাসগুলো অনুসরণ করতে সরাসরি চলে যেতে পারো এই লিঙ্কে: www.10minuteschool.com/admissions/live/

১০ মিনিট স্কুলের ব্লগের জন্য কোনো লেখা পাঠাতে চাইলে, সরাসরি তোমার লেখাটি ই-মেইল কর এই ঠিকানায়: write@10minuteschool.com

লেখাটি ভালো লেগে থাকলে বন্ধুদের সঙ্গে শেয়ার করতে ভুলবেন না!
What are you thinking?