কম্পিউটারের খুঁটিনাটি যে বিষয়গুলো না জানলেই নয়!

পুরোটা পড়ার সময় নেই? ব্লগটি একবার শুনে নাও

ডিজিটাল এই যুগে কম্পিউটার ছাড়া জীবন প্রায় অচল। দৈনন্দিন কাজে আমরা সবাই কমবেশি কম্পিউটার অথবা ল্যাপটপ ব্যবহার করে থাকি। আমাদের জীবনে কম্পিউটারের ভূমিকা বলে শেষ করা যাবে না। কম্পিউটারের বেশ কিছু খুঁটিনাটি কৌশল জানা থাকলে ব্যবহার হয়ে ওঠে সহজ। আজকে আমরা কম্পিউটারের ব্যবহার সম্পর্কে এমনই কিছু খুঁটিনাটি টিপ্‌স জেনে নেব।

১। ব্যাকআপ রাখা:

কম্পিউটারে অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য, ডকুমেন্ট অথবা ফাইল থাকে। এগুলো যাতে সুরক্ষিত থাকে সেজন্য ব্যাকআপ রাখা অত্যন্ত জরুরী। আজকাল ক্লাউডে ব্যাকআপ রাখা যায়। গুগল ড্রাইভ বা ড্রপবক্স এক্ষেত্রে অনেক জনপ্রিয়।

IQ তথা Intelligence Quotient পরীক্ষা সবখানেই অনেক সমাদৃত। এখন ১০ মিনিট স্কুলের সাথে ঘরে বসেই পরীক্ষা করে নাও তোমার IQ!

২। সুরক্ষিত থাকুক কম্পিউটার:

অনেক সময় সিস্টেমে অসুবিধার কারণে অতিরিক্ত কারেন্ট প্রবাহিত হতে পারে। এটা কম্পিউটারকে নষ্টও করে দিতে সক্ষম। কম্পিউটারের সুরক্ষা ব্যবস্থা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এ সমস্যা সমাধানে ইউ.পি.এস ব্যবহার করা ভালো।

৩। সফটওয়্যার আপডেট করা:

দ্রুত এবং নিরবিচ্ছিন্ন কাজের জন্য কম্পিউটার এর প্রোগাম এবং হার্ডওয়্যার নিয়মিত আপডেট করা প্রয়োজন। এতে কাজ করা অনেক সহজ হয়ে যায়।

৪। দেখুন, পড়ুন, বুঝুন!

কম্পিউটারে কাজ করার সময় কিছু ডায়লগ বক্স আসে, যেগুলো আমরা অনেকেই না পড়ে ‘OK’ বাটনে ক্লিক করে দেই। কিন্তু এগুলো অনেক সময় কম্পিউটারের জন্য ক্ষতিকর হতে পারে। তাই ‘OK’ বাটনে ক্লিক করার আগে কী লেখা আছে তা ভালভাবে পড়ে দেখতে হবে।

গণিতের ভয়কে কর জয়!

কম্পিউটার সায়েন্স শিখতে গেলে প্রতিটি পদক্ষেপে গণিত একটি অবশ্য বিষয়। কিন্তু সঠিকভাবে না শেখার কারণে গণিত অনেকের কাছে হয়ে ওঠে একটি বিভীষিকার মত।

তাই আর দেরি না করে, মজায় মজায় গণিত শিখতে আজই ঘুরে এস ১০ মিনিট স্কুলের এই এক্সক্লুসিভ প্লে-লিস্টটি থেকে!

১০ মিনিট স্কুলের অঙ্ক ভিডিও সিরিজ

৫। কম্পিউটার হোক ভাইরাসমুক্ত:

ভাইরাস হলো এমন এক ধরনের ক্ষতিকারক কম্পিউটার প্রোগ্রাম যে নিজে থেকে নিজের কপি তৈরি করতে পারে কিংবা অন্য একটি ফাইলের সাথে নিজেকে যুক্ত করে নিতে পারে। মূলত ভাইরাসের আক্রমনের শিকার হয় .exe (Executable File) এবং .com এক্সটেনশন যুক্ত ফাইলগুলো। কম্পিউটারকে ভাইরাসমুক্ত রাখতে হলে অ্যান্টি ভাইরাস অথবা Malware detection ইন্সটল করতে হয়।

৬। কম্পিউটার মেমরি পরিষ্কার করা:

কম্পিউটার দ্রুত কাজ করার জন্য কম্পিউটার মেমরি পরিষ্কার রাখা প্রয়োজন

ঘুরে আসুন: মাথায় কতো প্রশ্ন আসে!

৭। ‘Help’ অপশন:

কম্পিউটার প্রতিটি প্রোগ্রাম এর জন্যই রয়েছে কিছু প্রোগ্রাম সহায়তা মেন্যু। কিবোর্ড-এ F1 প্রেস করে সরাসরি তা জেনে নিতে পারো অথবা ইন্টারনেট এর মাধ্যমেও জানা যায়।

এখন স্মার্টবুকের সাথে পড়াশোনা হবে আর স্মার্টভাবে! এই লিঙ্কে চলে যাও আর দেখে নাও আমাদের স্মার্টবুকগুলো।

৮। কিবোর্ড শর্টকাট:

কিছু কিছু কাজ কম্পিউটার মেন্যু থেকে সিলেক্ট না করে কিবোর্ড-এর সাহায্যে শর্টকাট-এ করা যায়।

যেমন: কোন ফাইল কপি করার জন্য Ctrl+C, পেস্ট করার জন্য Ctrl+V এবং সেভ করার জন্য Ctrl+S (windows) অথবা Cmd+C (Mac)  ব্যবহার করা যায়।

এরকম আরও কিছু শর্টকাট আছে যা কম্পিউটার-এর ব্যবহারকে অনেক সহজ করে দেয়।


১০ মিনিট স্কুলের লাইভ এডমিশন কোচিং ক্লাসগুলো অনুসরণ করতে সরাসরি চলে যেতে পারো এই লিঙ্কে: www.10minuteschool.com/admissions/live/

১০ মিনিট স্কুলের ব্লগের জন্য কোনো লেখা পাঠাতে চাইলে, সরাসরি তোমার লেখাটি ই-মেইল কর এই ঠিকানায়: write@10minuteschool.com

লেখাটি ভালো লেগে থাকলে বন্ধুদের সঙ্গে শেয়ার করতে ভুলবেন না!
What are you thinking?