Uncategorized

ঘাসফড়িং: শ্বসনতন্ত্র, প্রজননতন্ত্র, রূপান্তর

Supported by Matador Stationary

শ্বসনতন্ত্র

ছোটখাট প্রাণী হলেও ঘাসফড়িং-এর শ্বসনতন্ত্র কিন্তু বেশ উন্নত ধরনের। ট্রাকিয়া নামক এক ধরনের শ্বাসনালি শাখা-প্রশাখা সৃষ্টির মাধ্যমে বিশেষ ধরনের এই শ্বসনতন্ত্র সৃষ্টি করে বলে একে ট্রাকিয়ালতন্ত্রও বলা হয়ে থাকে।

ঘাসফড়িং-এর শ্বসনতন্ত্র ছবিতে চিহ্নিত অঙ্গগুলো নিয়ে গঠিত:-


শ্বসন পদ্ধতি

শ্বাস-প্রশ্বাস জিনিসটা আসলে কী? সহজ কথায় অক্সিজেন আর কার্বন ডাইঅক্সাইডের আদান-প্রদান। অক্সিজেন দেহের ভেতর ঢুকবে আর কার্বন ডাইঅক্সাইড দেহ থেকে বের হবে। ঘাসফড়িং-এর ক্ষেত্রে এই গ্যাসীয় বিনিময় ঘটে ট্রাকিয়া ও ট্রাকিওলের মাধ্যমে। ২টি পর্যায়ে শ্বসন সম্পন্ন হয়:



প্রজননতন্ত্র 

ঘাসফড়িং একলিঙ্গ প্রাণী। অর্থাৎ একটি ঘাসফড়িং হয় পুরুষ হবে নাহয় স্ত্রী। স্ত্রী ও পুরুষ-উভয়ের বৈশিষ্ট্য একটি ঘাসফড়িং-এর মাঝে বিদ্যমান থাকবে না। কিন্তু বুঝব কী করে ঘাসফড়িংটা পুরুষ না স্ত্রী? খুব সহজেই। দেখবে স্ত্রী ঘাসফড়িং-এর উদরের শেষপ্রান্তে একটা ওভিপজিটর আছে যা পুরুষ ঘাসফড়িং-এর শরীরে অনুপস্থিত। তবে আরো ভাল করে স্ত্রী ও পুরুষ ঘাসফড়িং-এর পার্থক্য বুঝতে চাইলে জানতে হবে পুংজননতন্ত্র আর স্ত্রীজননতন্ত্র সম্পর্কে।


ঘাসফড়িং যৌন প্রক্রিয়ায় প্রজনন ঘটায়। নিচের ধারাবাহিক পর্যায়ে প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন হয়।

বিস্তারিত জানতে turn এ ক্লিক করো!



রূপান্তর

রূপান্তর হল এমন একটি ধারাবাহিক প্রক্রিয়া যার মাধ্যমে একটি ভ্রূণ পূর্ণাঙ্গ প্রাণীতে পরিণত হয়। রূপান্তর ২ ধরনেরঃ


রূপান্তর প্রক্রিয়া

ঘাসফড়িং-এর রূপান্তর অসম্পূর্ণ ধরনের। এর জীবনচক্রে ৩টি ধাপ লক্ষ্য করা যায়ঃ

বিস্তারিত জানতে turn এ ক্লিক করো!


সত্য মিথ্যা নির্ণয় করো:-


প্রিয় শিক্ষার্থীরা, এরই সাথে এখানে শেষ করছি আমাদের এই স্মার্টবুকটি। তোমাদের জানার পরিধি বৃদ্ধির ক্ষেত্রে অবদান রাখতে পারলেই আমাদের এই স্বল্প প্রয়াস হবে সার্থক। Never stop Learning!