এইচএসসি জীববিজ্ঞান ১ম পত্র

শৈবালের অঙ্গজ গঠন ও জনন

Supported by Matador Stationary

বৃষ্টির দিনে ভেজা, স্যাঁতস্যাঁতে জায়গায় কখনো হেঁটে দেখেছ? হাঁটতে নিশ্চয়ই খুব কষ্ট হয়? পা পিছলে পড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। লক্ষ্য করলে দেখা যায়, সেখানে সবুজ একটা স্তর পড়ে রয়েছে। আমরা এটাকে বলি “শ্যাওলা” জমেছে। বেশিদিন একটা বদ্ধ জায়গায় পানি আটকে থাকলেও কিন্তু পানির রং ধীরে ধীরে সবুজ হয়ে যায়। এসবই ঘটে শৈবালের কারণে। এই শৈবাল বা শ্যাওলা কিন্তু এক ধরণের জীব। কি অবাক হচ্ছ? সাধারণত গাছ বলতে আমরা যা বুঝি সেরকম আকার-আকৃতি এদের দেখা যায় না। কিন্তু এরা অপুষ্পক উদ্ভিদ এবং শৈবাল নামে পরিচিত। যাকে ইংরেজিতে বলা হয় ALGAE

শৈবাল নিয়ে বিজ্ঞানের যে শাখায় আলোচনা করা হয় তাকে বলা হয় ফাইকোলজি।

শৈবাল নিয়ে জানার আগে কিছু শব্দের সাথে পরিচিত হতে হবে। চলো শৈবাল সম্পর্কিত কিছু শব্দের অর্থ জেনে নেওয়া যাক।

ড্রপ ডাউনগুলোতে ক্লিক করে জেনে নাও বিস্তারিত

সঠিক উত্তরগুলোতে ক্লিক করো


শৈবালের সাধারণ বৈশিষ্ট্য


১। সালোকসংশ্লেষণকারী
২। স্বভোজী
৩। থ্যালোফাইট
৪। এক কোষী বা বহু কোষী
৫। প্যারেনকাইমা কোষ দ্বারা গঠিত
৬। সুকেন্দ্রিক
৭। কোষ প্রাচীর সেলুলোজ দ্বারা গঠিত
৮। সঞ্চিত খাদ্য সাধারণত স্টার্চ জাতীয়
৯। ভাস্কুলার টিস্যুবিহীন
১০। জননাঙ্গ এককোষী। তবে বহুকোষী হলেও তাতে বন্ধ্যা কোষ থাকে না।
১১। যৌন জনন আইসোগ্যামাস, অ্যানাইসোগ্যামাস বা ঊগ্যামাস জাতীয়।
১২। স্পোরাঞ্জিয়া এককোষী



Fatal error: Call to undefined function wp_pagenavi() in /home/ab87442/public_html/hsc/wp-content/themes/sociallyviral/content-single.php on line 56