এইচএসসি জীববিজ্ঞান ১ম পত্র

প্রস্বেদন ও এর প্রভাবক সমূহ

“কী যে গরম পড়েছে রে শিমুল, আমি তো ঘামতে ঘামতে পাগল হয়ে যাচ্ছি।” টুকু বলল।

স্কুল থেকে বাসায় ফিরলো দুই বোন। বাসায় ফিরে ফ্যান ছেড়ে দিল টুকু। “ওহ! এতো আরাম লাগছে। একটু সময়ও ফ্যান ছাড়া থাকা যায় না। আর বাইরেও দেখ একটুও বাতাস নেই।” টুকু বলল শিমুলকে।

সন্ধ্যা বেলায় শিমুল দেখলো তাদের মা বারান্দার গাছে পানি দিচ্ছে। হঠাৎ তাঁর মাথায় একটা প্রশ্ন আসলো। সে গিয়ে টুকুকে জিজ্ঞেস করলো, “আমাদের শরীর থেকে পানি বের হয়ে যাওয়াকে ঘাম বলে। এখন বলতো গাছ ঘামে কী না?”

টুকু তো অবাক, “এটা আবার কী ধরণের প্রশ্ন হল গাছ ঘামবে কীভাবে?” সে পাল্টা প্রশ্ন করে শিমুলকে।

শিমুল বলল, “তুই খুব বোকা। একবার চিন্তা করেই বলে দিতে পারবি গাছের ঘাম আসলেও হয় কী না।”

টুকু বলে, “তুই ই বল, আমি শুনি।”

“গাছের ঘাম কে প্রস্বেদন বলে।” শিমুল বলল।

“কেন?” অবাক হয়ে টুকু আবার প্রশ্ন করলো।

তখন শিমুল বলে, প্রস্বেদনের কারণে গাছ থেকে পানি বেড়িয়ে যায়, ঠিক যেমন আমাদের দেহ থেকে পানি বেড়িয়ে যায়। তাই আমি নাম দিয়েছি গাছের ঘাম হল প্রস্বেদন।

“ঠিক আছে মেনে নিলাম, কিন্তু আমাদের চামড়া বা ত্বক দিয়ে ঘাম বের হয়। উদ্ভিদের ক্ষেত্রে এমন কোন অংশ আছে যেটা দিয়ে প্রস্বেদন হয়?” টুকু শিমুলকে জিজ্ঞেস করলো আবার।

শিমুল উত্তর দিল, “গাছের ক্ষেত্রে প্রস্বেদন তিন ভাবে হয়ে থাকে।” এগুলো হল:



“আমাদের যেমন গরম লাগলে ঘাম হয়। ফ্যান ছেড়ে দিলে খুব আরাম লাগে গরমের মধ্যে। গাছেরও কী এই রকম হয়?” টুকু আবার জিজ্ঞেস করে শিমুলকে।

তখন শিমুল বলে, “আমাদের গরম লাগে কখন, যখন পরিবেশে তাপমাত্রা বেশী থাকে। আবার অনেক সময় প্রচণ্ড আলোতেও আমাদের গরম লাগে, যেমন রোদ বেশী হলে। ফ্যান ছাড়লে আরাম লাগে, কারণ তখন বাতাস এসে লাগে আমাদের শরীরে। তেমনি গাছের ঘাম বা প্রস্বেদনের ক্ষেত্রেও এমন অনেক গুলো বিষয় আছে, যাদের দিয়ে প্রস্বেদন নিয়ন্ত্রিত হয়। এদের আমরা দুই ভাগে ভাগ করতে পারি। প্রথম ভাগ হল, বাহ্যিক প্রভাবক। এদের উদাহরণ হল”-

ড্রপ ডাউনগুলোতে ক্লিক করে জেনে নাও বিস্তারিত


সঠিক উত্তরে ক্লিক করো


শিমুল বলল টুকুকে, “গাছের দেহের যে অংশ গুলো প্রস্বেদনে সাহায্য করে তারা হল অভ্যন্তরীণ প্রভাবক।” এদের উদাহরণ হল: মূলের পরিমান, পাতা পরিমাণ, পাতার গঠন

সত্য মিথ্যা যাচাই করো





তাহলে বন্ধুরা, শিমুল আর টুকুর গল্প থেকে আমরা প্রস্বেদন সম্পর্কে জানতে পারলাম। আশা করি তোমরা বুঝতে পেরেছো। 10 Minute School এর পক্ষ থেকে তোমাদের ধন্যবাদ।