Uncategorized

দ্বিবীজপত্রী

Supported by Matador Stationary

 

হানিফ স্যার জীববিজ্ঞান ব্যবহারিক ক্লাসে এসে বললেন, “ আজকে তোমাদের আমি দ্বিবীজপত্রী উদ্ভিদের কাণ্ডের গঠন অনুবীক্ষণ যন্ত্রের সাহায্যে তোমাদের দেখাবো।” গঠন দেখে দেখে, দ্বিবীজপত্রী উদ্ভিদের কাণ্ডের প্রতিটি টিস্যুতন্ত্রের বৈশিষ্ট্য লিখে জমা দিবে আমাকে। তখন তমালিকা বলল, “স্যার আমরা কীভাবে এত গুলো টিস্যুতন্ত্র খুঁজে বের করবো।” হানিফ স্যার ধমক দিয়ে বললেন, “ এত গুলো মানে কি? হাসিব তুমি দাঁড়াও। আমাকে বল উদ্ভিদে কত ধরণের টিস্যুতন্ত্র দেখা যায়।” তখন হাসিব দাঁড়িয়ে বলল, “ স্যার উদ্ভিদে সাধারণত ৩ ধরণের টিস্যুতন্ত্র দেখা যায়। ত্বকীয়, গ্রাউন্ডভাস্কুলার টিস্যুতন্ত্র।” স্যার বললেন, “ খুব ভাল। আমি তোমাদের জন্য স্কুলের বাগান থেকে সূর্যমুখী গাছের কাণ্ড সংগ্রহ করেছি। প্রথমে তোমরা কাণ্ড হাতে নিয়ে খুব পাতলা ভাবে কেটে ফেলো, যাতে অণুবীক্ষণ যন্ত্রের নিচে কাণ্ডের গঠন খুব ভাল ভাবে দেখা যায়। এখন প্রতিটি অংশের বৈশিষ্ট্য লিখে ফেলো।”



তাহলে বন্ধুরা, আমরাও দেখে নিই হানিফ স্যারের ছাত্র- ছাত্রীরা দ্বিবীজপত্রী উদ্ভিদের কাণ্ডের বিভিন্ন টিস্যুতন্ত্রের কী কী বৈশিষ্ট্য লিখেছিল।