Uncategorized

গ্লিসারিন, নাইট্রো-গ্লিসারিন ও টি,এন,টি

হাইলাইট করা শব্দগুলোর উপর মাউসের কার্সর ধরতে হবে। মোবাইল ব্যবহারকারীরা শব্দগুলোর উপর স্পর্শ করো- 


একদিন বিকেল বেলায় দিপু ও তার মা বসে জি বাংলা চ্যানেলে সিরিয়াল দেখতেছিল। সেখানে অভিনেত্রীর কান্না দেখে দিপুর মাও কাদতে লাগলো। তখন দিপু বলল মা তুমি কাদছ কেন? তিনি বললেন অভিনেত্রীর দুঃখে উনার কান্না পাচ্ছে। দিপু বলল অভিনেত্রী তো সত্যি কান্না করছেনা, গ্লিসারিন চোখে দিয়ে করছে। তার মা তখন বলল গ্লিসারিন? গ্লিসারিন দিয়ে কান্না করা যায়? তখন দিপু বলল গ্লিসারিন দিয়ে কান্না নয় শুধু এটি আরো অনেক কাজে ব্যবহৄত হয়। চল গ্লিসারিন সম্পর্কে কিছু তথ্য জেনে নেওয়া যাক।

গ্লিসারিন

সিনেমা ও টিভিতে অভিনেতা/অভিনেত্রীর কৃত্রিম অশ্রুর জন্য গ্লিসারিনের ব্যবহার হয়। তবে গ্লিসারিন এমন একটা জিনিস যার অন্য প্রয়োগও আছে। গ্লিসারিন অনেক উপকার করে ত্বক ও রুপচর্চায়। সাধারণত গ্লিসারল নামক জৈব পদার্থের মিশ্রিত ও বাণিজ্যিক নাম হিসাবে গ্লিসারিন ব্যবহার করা হয়। গ্লিসারিন শুধু যে অশ্রু গ্রন্থিকে উত্তেজিত করে কৃত্রিম কান্নার সৃষ্টি করে এমন নয়, এটা আমাদের ত্বককেও উত্তেজিত করে তাকে সতেজ করে। গ্লিসারিন সরাসরি ত্বকে প্রয়োগ করা যায় অথবা মুখের প্যাক ও মুখের মাস্কের উপাদান হিসেবে ব্যবহার করা যায়।


এই গ্লিসারিন কিভাবে প্রস্তুত করা যায় চল তা দেখে নিই-

গ্লিসারিন উৎপাদন


সঠিক উত্তরে ক্লিক করো-



চলো এখন দেখে নিই কোন যৌগে গ্লিসারিন থাকলে তা কিভাবে শনাক্ত করা যায়-

KHSO₄ বা, P₂O₅ এর উপস্থিতিতে অথবা উচ্চ তাপমাত্রায় গ্লিসারিনকে উত্তপ্ত করলে গ্লিসারিন অণু থেকে দুই অণু পানি অপসারিত হয়ে দুর্গন্ধযুক্ত শ্বাস রোধক ঝাঁঝালো অ্যাক্রোলিন উৎপন্ন হয়। এটিই গ্লিসারিন/গ্লিসারল (glycerol) শনাক্তকরণের অ্যাক্রোলিন (acrolein) টেস্ট।


নিচের অপশনগুলো সঠিক সংকেত এর নিচে টেনে নাও-


নাইট্রোগ্লিসারিন

বন্ধুরা এখন আমরা নাইট্রোগ্লিসারিন সম্পর্কে জানবো। যা ব্লাক পাউডারের পর প্রথম বিস্ফোরক যেটা সহজে প্রস্তুত করা যায় এবং ব্লাক পাউডার থেকেও শক্তিশালী। রসায়নবিদ অ্যাসকানিও সোবরেরো ১৮৪৭ সালে এটি আবিষ্কার করেন। তিনি প্রাথমিকভাবে তাঁর আবিষ্কারের নাম দিয়েছিলেন পাইরোগ্লিসারিন, এবং তিনি এটিকে তাঁর ব্যক্তিগত পত্র ও জার্নালের নিবন্ধে অত্যন্ত বিপজ্জনক বলে উল্লেখ করেছিলেন। তিনি বলেছিলেন যে, এটা নাড়াচাড়া করা খুবই বিপজ্জনক ও অনেকটাই অসম্ভব। এটি গ্লিসারিন হতে প্রস্তুত করা যায়।


ডান পাশের সাথে বাম পাশ মিলিয়ে ফেলো-


টি.এন.টি (TNT)

বন্ধুরা তোমরা সবাই নিশ্চয়ই টি.এন.টি এর নাম শুনেছো, তাই না? টি.এন.টি অত্যন্ত বিপদজনক বিস্ফোরক ও বিষাক্ত পদার্থ। বিস্ফোরক ধর্ম ও বিষাক্ততার জন্য টি.এন.টি ব্যবহার এর ক্ষেত্রে সচেতন থাকা দরকার। টি.এন.টি এর আরো অনেক কাজ আছে। যেমন- চামড়ার সংস্পর্শে আসলে চামড়া জ্বলতে থাকে এবং হলুদ কমলা বর্ণ ধারণ করে, জৈব রাসায়নিক সংশ্লেষণে বিকারকরূপে, হাতবোমা, বম্ব শেল, ইত্যাদি প্রস্তুত করতেও ব্যবহৃত হয়।


টি.ন.টি (TNT) প্রস্তুতি


বন্ধুরা এখন কিছু নাইট্রোগ্লিসারিনের ব্যবহার জেনে নিই চল।

মোবাইল স্ক্রিনের ডানে ও বামে swipe করে ব্যবহার করো এই স্মার্টবুকটি। পুরো স্ক্রিন জুড়ে দেখার জন্য স্লাইডের নিচে পাবে আলাদা একটি বাটন-


সঠিক উত্তরে ক্লিক করো-


আশা করি, এই স্মার্ট বুকটি থেকে তোমরা গ্লিসারিন, নাইট্রো-গ্লিসারিন ও টি,এন,টি সম্পর্কে পরিষ্কার ধারণা পেয়েছ। 10 Minute School এর পক্ষ থেকে তোমাদের জন্য শুভকামনা রইল।