সপ্তম শ্রেণি: গণিত

বীজগণিতীয় সূত্রাবলি ও প্রয়োগ

Supported by Matador Stationary

আচ্ছা, তোমাদেরকে যদি দুটি বীজগণিতীয় রাশির যোগফলের বর্গ নির্ণয় করতে বলি তাহলে তোমরা নিশ্চয় এখন গুণ করা শুরু করবে। কিন্তু এই কাজটা সময় সাপেক্ষ, আর বারবার গুণ করতেও নিশ্চয় ভালো লাগে না। তাই তোমাদেরকে এই অধ্যায় এর সাথে পরিচয় করে দেওয়া। এখানে থেকে তোমরা বীজগণিতের বিভিন্ন সূত্রাবলি সম্পর্কে জানতে পারবে এবং খুব সহজে প্রয়োগ করে ফেলতে পারবে।

বিভিন্ন ধরনের সূত্রাবলি

(>) চিহ্নিত স্থানে ক্লিক করে দেখে নাও পরবর্তী চিত্র!


বিভিন্ন ধরনের অংক

মোবাইলে ডানে বামে swipe করে দেখে নাও নিচের ভিডিওগুলো। পুরো স্ক্রিন জুড়ে দেখার জন্য স্লাইডের নিচে পাবে আলাদা একটি বাটন।



বীজগণিতীয় রাশির উৎপাদক

উৎপাদক মানে হচ্ছে গুণনীয়ক। 6 = 2 × 3 তাই এখানে, 2 ও 3 হলো 6 এর দুটি উৎপাদক। বীজগণিতীয় বিভিন্ন সূত্র এবং গুণের বিনিময়বিধি, সংযোগবিধি ও বণ্টনবিধি ব্যবহার করে বীজগণিতীয় রাশিকে উৎপাদকে বিশ্লেষণ করা হয়। কোন বীজগণিতীয় রাশিকে উৎপাদকে বিশ্লেষণ করা মানে রাশিকে দুটি গুণফল আকারে প্রকাশ করা।

উৎপাদকে বিশ্লেষণ

১। ax – by + ax – by কে উৎপাদকে বিশ্লেষণ করো।

সমাধান:

= ax – by + ax – by

= 2ax – 2by

= 2 (ax – by )