অষ্টম শ্রেণীঃ বাংলা ১ম পত্র

নতুন দেশ: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

Supported by Matador Stationary

স্মার্টবুক যেভাবে ব্যবহার করবে

নতুন দেশ

লেখক: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

নদীর ঘাটের কাছে
নৌকো বাঁধা আছে
নাইতে যখন যাই, দেখি সে
        জলের ঢেউয়ে নাচে।
            আজ গিয়ে সেইখানে
                  দেখি দূরের পানে
                    মাঝ নদীতে নৌকা, কোথায়
ভাটার টানেচলে
জানিনা কোন দেশে
পৌঁছে যাবে শেষে,
            সেখানেতে কেমন মানুষ
                  থাকে কেমন বেশে।

    থাকি ঘরের কোণে,
    সাধ জাগে মোর মনে,
অমনি করে যাই ভেসে, ভাই,
নতুন নগর বনে।
            দূর সাগরের পাড়ে,
            জলের ধারে ধারে,
নারিকেলের বনগুলি সব
দাঁড়িয়ে সারে সারে। থাকি ঘরের কোণে,
    সাধ জাগে মোর মনে,
            পাহাড়-চূড়া সাজে
            নীল আকাশের মাঝে,
বরফ ভেঙ্গে ডিঙ্গিয়ে যাওয়া
কেউ তা পারে না-যে।
            কোন সে বনের তলে
            নতুন ফুলে ফলে
নতুন নতুন পশু কত
              বেড়ায় দলে দলে।
                কত রাতের শেষে
নৌকো যে যায় ভেসে।
      বাবা কেন আপিসে যায়,
      যায় না নতুন দেশে?


কবিতার মূলভাব:

কবিতাটিতে  শিশু মনের কল্পনায় নতুন এক দেশের চিত্র প্রতিফলিত হয়েছে। অজানাকে জানার অদম্য কৌতূহলের জন্য নতুন নগর-বনে যাওয়ার সাধ জাগে তার মনে। তার এই কৌতূহল সে অন্যের মাঝেও দেখতে চায়। তার মনে তাই হাজারো প্রশ্ন জাগে।

ছোট্ট একটি কুইজ দিয়ে নিজেকে ঝালিয়ে নাও!