এসএসসি হিসাববিজ্ঞান

হিসাব

Supported by Matador Stationary

হিসাব

মনে কর, স্কুল ক্যান্টিনের মামার সিঙ্গারা ছাড়া তোমার টিফিন চলেই না। একটা সিঙ্গারার দাম হল ৫ টাকা। তুমি সকালে ঘুম থেকে উঠেছ ও যথারিতি প্রস্তুত হয়ে বাবার কাছে সিঙ্গারা কিনার টাকা নিতে গিয়েছ। বাবা ও আজ খুশি মনে তোমাকে ১০ টাকা দিয়ে দিল। তুমি ও খুশি। এখন স্কুলে টিফিনের জন্য সিঙ্গারা কিনলে ৫ টাকা দিয়ে আর তোমার বন্ধু যে আজ টিফিন নিয়ে আসেনি সে আজ তোমার কাছ থেকে টিফিন কিনার জন্য ৫ টাকা ধার করল। আবার পরদিন, বাবা তোমাকে ৫ টাকা দিল আর সেই বন্ধুটি তোমাকে ৫ টাকা ফেরত দিয়ে দিল।

এই যে কত লেনদেন তুমি করলে, কখনো ১০ টাকার মালিক তুমি আবার কখনো ধার দিয়ে তমার কাছে নগদ টাকা না থাকলেও তুমিই কিন্তু ৫ টাকা র মালিক ছিলে পরবর্তীতে।

এভাবে প্রতিদিন ব্যবসায়ীরা অনেক ধরনের লেনদেন করে থাকে। আমরা ইতোমধ্যেই জানি যে, ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানের অন্যতম প্রধান উদ্দেশ্য আর্থিক ফলাফল ও আর্থিক অবস্থা নির্ণয় করা। এই উদ্দেশ্য সাধনের জন্য ব্যবসায়ীরা একটি ছকে লেনদেন সমূহ সংগ্রহ করে রাখে।

ডেবিট ও ক্রেডিট

হিসাব সমীকরণ

(A = L + E)/ (সম্পদ = দায় + মালিকানাস্বতঃ)/ সম্পদ = দায় + মালিকের মূলধন + আয় – ব্যয় – মালিকের উত্তোলন)

বন্ধুরা, তোমরা নিছের ছবিটিতে ক্লিক্করে জেনে নাও হিসাব সমীকরণের উপাদান গুলো সম্বন্ধে  তথ্য:

হিসাব সমীকরণের শ্রেণীবিভাগ

উপরের সমীকরণটিতে খেয়াল করলে দেখবে, ৫ প্রকারের হিসাব রয়েছে। সুতরাং আধুনিক পদ্ধতিতে হিসাব ৫ প্রকার।
১। সম্পদ
২। দায়
৩। মালিকানাসত্ব
৪।আয়
৫। ব্যয়
আমরা উপরেই এই হিসাব গুলো সম্বন্ধে বিস্তারিত পড়েছি। এ সকল হিসাবের হ্রাস বৃদ্ধির মাধম্যেই হিসাব প্রস্তুত করা হয়।

চলো শেষবারের মত নিজেকে ঝালাই করে নেই!