এইচ এস সি রসায়ন দ্বিতীয় পত্র: শেষ মুহূর্তের টিপস

পুরোটা পড়ার সময় নেই? ব্লগটি একবার শুনে নাও।

 

আমি যখন দ্বাদশ শ্রেণিতে ছিলাম, তখন প্রথম দিকে রসায়ন দ্বিতীয় পত্রকে বেশ কঠিন মনে হতো। বিশেষ করে জৈব রসায়ন অধ্যায়টিকে তো দু’চোখে দেখতেই পারতাম না! ভালমত বইটা পড়ে দেখার চাইতে সাজেশন দেখে পরীক্ষা দিতে যাওয়ার বেশ প্রবল একটা ইচ্ছা নিজের মাঝে কাজ করতে শুরু করে সেই সময়ে।

ঘুরে আসুন: পরীক্ষায় শেষ করতে লেখা, কী করলে যাবে শেখা?

আমার কিছু বন্ধুকে দেখতাম পুরো আমার উল্টো। তারা এই বিষয়টিকে পছন্দ করতো জৈব রসায়ন অধ্যায়টির জন্যই। এইচএসসি পরীক্ষা শেষ হলো। আমি কখনোই আর ওদের মত হতে পারিনি। বেশ ভালমত রসায়নটা শিখেছি ঠিকই কিন্তু জৈব রসায়নের উপর ভালবাসাটা আর এলো কই?

কোনো সমস্যায় আটকে আছো? প্রশ্ন করার মত কাউকে খুঁজে পাচ্ছ না? যেকোনো প্রশ্নের উত্তর পেতে চলে যাও ১০ মিনিট স্কুল লাইভ গ্রুপটিতে!

আমার কথা বাদ দিই। অল্প কয়টা দিন পর তোমাদের রসায়ন দ্বিতীয় পত্র পরীক্ষা। শেষ মুহূর্তে তাই এসো তোমাদেরকে জানিয়ে রাখি কী কী করতে হবে। পাঁচটি ছোট ছোট ট্রিক্স আর হ্যাকস বলে দিই যাতে করে পরীক্ষায় আরো ভালো করে ফেলা সম্ভব হয়ে ওঠে তোমাদের জন্য।

১। পুরো বই একবার দেখতেই হবে:

তোমার কাছে যতই গাইড বই, টেস্ট পেপার, শর্ট সাজেশন থাকুক না কেন, পুরো বইটা একবার নিজের চোখে না দেখে যেন পরীক্ষার হলে যেওনা। তোমার আত্মবিশ্বাসকে বাড়িয়ে তুলতে মূল বইতে একবার চোখ বুলানোর চাইতে ভাল উপায় আর নেই।

২। নতুন কিছু শিখতে যেয়ো না:

পরীক্ষার আর মাত্র দুই একদিন বাকি, অথচ তুমি কিনা এখন নতুন করে শিখতে চাইছো আরেকটি টপিক! খবরদার! এই ভুল মোটেও করা যাবেনা। পুরোনো যে বিষয়গুলো তুমি পারো, সেগুলোই ভালো করে রিভিশন দিয়ে দাও। নতুন কিছু এই শেষ মুহূর্তে শিখতে গেলে পুরোনোগুলোর সাথে মিলেমিশে জগাখিচুড়ি হয়ে যেতে পারে, যা তোমার জন্য ভালো ফল বয়ে আনবে না।

ঘুরে এস জৈব রসায়নের জগৎ থেকে!

জৈব রসায়ন এমন একটি বিষয় যেটি অনেকের কাছেই বিভীষিকা-স্বরূপ। সঠিক পদ্ধতিতে জৈব রসায়নের অধ্যায়গুলো পড়লে বিষয়টি অনেক সহজ হয়ে যায়।

তাই আর দেরি না করে, এই প্লে-লিস্টটিতে চলে যাও সঠিক পদ্ধতিতে জৈব রসায়ন শিখতে! 😀

১০ মিনিট স্কুলের রসায়ন ভিডিও সিরিজ

৩। বিক্রিয়াগুলো ভালমতো দেখে যাও:

রসায়ন দ্বিতীয় পত্রের কোন বিষয়টা নিয়ে আমাদের সবচাইতে বেশি ভুগতে হয় বলোতো? নিশ্চয়ই বিক্রিয়া, তাইনা? এত শত বিক্রিয়া রয়েছে যে, একটির জায়গায় অন্যটি লিখে চলে আসা বেশ নিত্য-নৈমিত্তিক একটা ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। এ ভুলটি থেকে রেহাই পেতে তোমাকে বিক্রিয়াগুলো ভালমতো দেখে যেতেই হবে।

ঘুরে আসুন: আমার প্রথম পাবলিক পরীক্ষা আর ভোঁতা পেন্সিলের গল্প!

৪। লিখে লিখে প্র্যাকটিস করো:

মুখে মুখে আওড়ে গেলেই যে সবকিছু পরীক্ষার হলে চট করে মনে পড়বে, এমনটা নয়। এখনো প্রায়ই আমাকে এ ধরণের সমস্যায় পড়তে হয়। তাই সবচাইতে ভাল বুদ্ধিটা হলো, সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো লিখে লিখে প্র্যাকটিস করে ফেলা। কথায় বলে দশবার পড়া একবার লেখার সমান। আলসেমি না করে এজন্য লিখে যাও যেগুলো সবচাইতে জরুরি।

কখনোই পরীক্ষার আগের রাতে সারারাত জেগে সবকিছু মাথায় ঢোকানোর চেষ্টা করতে যেও না

৫। আগের রাতে আগেভাগে ঘুমানো:

শুধু রসায়ন দ্বিতীয় পত্র না, প্রতিটা পরীক্ষার আগেই আগেভাগে ঘুমাতে যাওয়া অনেক জরুরি। তুমি সারাদিন যা মাথায় ঢোকানোর চেষ্টা করো, সেসব কিছুই রাতে যখন তুমি ঘুমাও তখন তোমার ব্রেইন সুন্দর করে সাজিয়ে রাখে।

তোমার স্বপ্নের পথে পা বাড়ানোর ক্ষেত্রে তোমার ইংরেজির জ্ঞান কার্যকরী ভূমিকা রাখতে পারে!তাই আর দেরি না করে, আজই ঘুরে এস ১০ মিনিট স্কুলের এই এক্সক্লুসিভ প্লে-লিস্টটি থেকে!

পরীক্ষার আগের রাতে না ঘুমানোর অর্থ হলো তুমি তোমার ব্রেইনকে সারাদিন ধরে পড়ে আসা কোনকিছুই সাজিয়ে রাখতে দিলে না। অনেকটা নিজের পায়ে কুড়াল মারার মত। তাই কখনোই পরীক্ষার আগের রাতে সারারাত জেগে সবকিছু মাথায় ঢোকানোর চেষ্টা করতে যেওনা।

ভালো একটা প্রস্তুতি আর সুস্থ মনই পারবে তোমাকে রসায়ন দ্বিতীয় পত্র পরীক্ষায় ভালো করাতে। এই পাঁচটি সাজেশন আর টিপস-ট্রিক্স দেখে নাও পড়ার এক ফাঁকে। শেয়ার করে ফেলো এখনই, যাতে করে তোমার বাকি বন্ধুদেরও একটু সুবিধা হয়ে যায়। নিজের উপর বিশ্বাস রেখো। তুমি পারবেই!


১০ মিনিট স্কুলের লাইভ এডমিশন কোচিং ক্লাসগুলো অনুসরণ করতে সরাসরি চলে যেতে পারো এই লিঙ্কে: www.10minuteschool.com/admissions/live/

১০ মিনিট স্কুলের ব্লগের জন্য কোনো লেখা পাঠাতে চাইলে, সরাসরি তোমার লেখাটি ই-মেইল কর এই ঠিকানায়: write@10minuteschool.com

লেখাটি ভালো লেগে থাকলে বন্ধুদের সঙ্গে শেয়ার করতে ভুলবেন না!
What are you thinking?