ইন্টারনেটে Productive কাজ করার ৭টি উপায়

পুরোটা পড়ার সময় নেই? ব্লগটি একবারে শুনে নাও!

আমাদের প্রজন্মের অন্যতম বড় সমস্যা হচ্ছে, আমরা সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেক বেশি আসক্ত। আমরা সারাক্ষণই প্রায় ইন্টারনেটে থাকি, কিন্তু আমরা এই অসাধারন জিনিসটাকে ঠিক করে কাজে লাগাচ্ছি না। আমরা ফলপ্রসূ কোন কাজ করছি না, কেবল ফেসবুক-ইন্সটাগ্রামেই আমাদের যাত্রা সীমাবদ্ধ রয়ে যাচ্ছে।

ঘুরে আসুন: মোবাইল অ্যাপ যখন Study-Buddy

অথচ ইন্টারনেটকে কাজে লাগিয়ে করা সম্ভব অনেক কিছু। অর্থ উপার্জন, নতুন কিছু শেখা – এমনকি একটা ডিগ্রিও নেয়া যায় ইন্টারনেট থেকে। দেখে আসা যাক এরকম কিছু কাজ –

১। নতুন কিছু শেখা

জানার কোন শেষ আসলেই নেই। পৃথিবীতে এত এত জানার আর শেখার জিনিস আছে, কেউ গুনে শেষ করতে পারবে না। আর প্রায় সব কিছুরই টিউটোরিয়াল ভিডিও আছে ইউটিউবে।

গ্রাফিক্স ডিজাইনিং, পাওয়ারপয়েন্ট প্রেজেন্টেশান ইত্যাদি স্কিল ডেভেলপমেন্টের জন্য 10 Minute School Skill Development Lab নামে ১০ মিনিট স্কুলের রয়েছে একটি ফেইসবুক গ্রুপ।

কোনো বিষয়ে পড়াশোনা করতে চাইলে রয়েছে খান একাডেমি অথবা কোরা’র মত ওয়েবসাইট। বৈজ্ঞানিক কার্যকারণ নিয়ে পড়তে চাইলে রয়েছে হাউ স্টাফ ওয়ার্কস। এই সবগুলো ওয়েবসাইটের যেকোনটা তোমার সামনে খুলে দিতে পারে জ্ঞানের অবাধ দরজা। তাই শিখতে চাইলে এখনি লগ ইন করো এই সাইটগুলোর কোনো একটায়।

২। বৈশ্বিক প্রেক্ষাপট নিয়ে জানো

হয়তো তুমি সিরিয়ার গৃহযুদ্ধ নিয়ে কিছুই জানো না। অথবা জানো না কীভাবে কাজ করে ইউরোপীয় ইউনিয়ন। আন্তর্জাতিক বিষয়ে তোমার জ্ঞান হয়তো খুব বেশি না। এসব বিষয়ে জ্ঞান বাড়াতে তুমি ঢুকতে পারো ফাস্ট কোম্পানি, অন্ট্রপ্রেনর ইত্যাদি সাইটে।

বিভিন্ন বিষয়ে গুরুত্ত্বপূর্ণ আর তথ্যবহুল বক্তৃতা শুনতে দেখতে পারো টেড টকস। অনেকদিন ভালো বই পড়া হয় না? ঢুকতে পারো গুডরিডসে। সারা বিশ্বের মানুষের সাজেশন থেকে পেয়ে যেতে পারো পড়ার মত অসাধারন কোন বই।

৩। ইতিহাস আর আন্তর্জাতিক সম্পর্ক নিয়ে জানো

তুমি কি মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানো? জানো কি দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে কী কী করেছিল নাৎসি বাহিনী? তুমি কি জানো মধ্যপ্রাচ্যে এত যুদ্ধ হবার কারণ কী?

পাওয়ারপয়েন্টে বানিয়ে ফেলুন আপনার সিভি!

পাওয়ারপয়েন্ট ব্যবহার করে অনেক গুরুত্বপূর্ণ কাজ সেরে ফেলতে পারেন আপনি!

তাই, আর দেরি না করে ১০ মিনিট স্কুলের এক্সক্লুসিভ এই প্লে-লিস্টটি থেকে ঘুরে আসুন, এক্ষুনি!

১০ মিনিট স্কুলের পাওয়ার পয়েন্ট সিরিজ

ইতিহাস বা আন্তর্জাতিক সম্পর্ক নিয়ে পড়াশোনা করতে দেখে আসতে পারো ফরেন পলিসি বা জেইন’স। এই সাইটগুলো তোমাকে ইতিহাসের নিরপেক্ষ তথ্য দেবে।

৪। নিজের ব্যক্তিগত আর পেশাগত জীবনকে গুছিয়ে নাও

আমরা এত বেশি সোশাল নেটওয়ার্কিং করি, কিন্তু অনেকেই একটা গুরুত্বপূর্ণ সোশ্যাল মিডিয়া সাইটের নাম জানি না। এটি হচ্ছে লিংকডইন। লিংকডইনে প্রফেশনাল মানুষেরা নিজের কাজের প্রোফাইল আপডেট করেন, আর প্রয়োজনীয় প্রফেশনালদের খুঁজে নেন। তুমি আর্ট পারো? প্রোগ্রামিং পারো? ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট পারো? নিজের দক্ষতার পূর্ণ বিবরণ দিয়ে খুলে ফেল একটা লিংকডইন প্রোফাইল। তোমার দক্ষতা দেখে তোমাকে খুঁজে নেবে কাজ!

৫। অনলাইন শপিং

না, আমি ফেসবুকের জুয়েলারি আর টিশার্ট শপের কথা বলছি না। ইন্টারনেটের শপিং জায়ান্টরা – যেমন ইবে, আমাজন বা আলীবাবা কেনাকাটাকে দিয়েছে নতুন এক মাত্রা। যেকোন কিছু সুলভ মূল্যে পাওয়া যায় এসব সাইটে। দোকানে দোকানে না খুঁজে নিজের পছন্দের জিনিসটা খুঁজে নাও অনলাইনেই। যদি পেপ্যাল সংক্রান্ত সমস্যা হয়ে থাকে, তাহলে ব্যবহার করতে পারো দেশীয় রকমারি, অথবা, কিংবা এখনি

ঘুরে আসুন:  ইন্টারনেটে চাকরীর খোঁজ

৬। মজার মজার জিনিস খুঁজে নাও

আরেকটি অসাধারণ সোশ্যাল মিডিয়া সাইট (যার নাম অনেকেই জানে না) হলো পিনটারেস্ট। নিজের কোন পছন্দের বিষয় নিয়ে অনেক ডিটেইল আলোচনা, নতুন নতুন আইডিয়া আর টিপস, ছবি, ডিজাইন ইত্যাদির আখড়া হলো পিনটারেস্ট।

তোমার স্বপ্নের পথে পা বাড়ানোর ক্ষেত্রে তোমার ইংরেজির জ্ঞান কার্যকরী ভূমিকা রাখতে পারে! তাই আর দেরি না করে, আজই ঘুরে এস ১০ মিনিট স্কুলের এই এক্সক্লুসিভ প্লে-লিস্টটি থেকে!

পিনটারেস্ট, রেডিট বা ডিভায়েন্ট আর্ট – এই ওয়েবসাইটগুলো তোমার সামনে শিল্প, সাহিত্য, গান বা পপ কালচারের নতুন নতুন দিক নিয়ে আসবে।

৭। নিজের চিন্তাগুলো প্রকাশ করো

অনেকেই ফেসবুকে লেখালেখি করো, বা জড়িত আছো কোনো ব্লগের সাথে। নিজের লেখাকে আরো বড় প্ল্যাটফর্ম দিতে চাইলে তুমি জয়েন করতে পারো বিভিন্ন ইন্টারনেট ব্লগে। রেডিট এর মধ্যে অন্যতম। এছাড়াও রয়েছে আর্কাইভ অফ আওয়ার ওউন, ফ্যানফিকশন ডট নেট প্রভৃতি। তোমার সৃষ্টি পড়বে সারা বিশ্ব, ফিডব্যাক দেবে দূর দূরান্ত থেকে – এর চেয়ে বড় সম্মান আর কীইবা হতে পারে!

এই লেখাটির অডিওবুকটি পড়েছে আব্দুল্লাহ আল মেহেদী


১০ মিনিট স্কুলের লাইভ এডমিশন কোচিং ক্লাসগুলো অনুসরণ করতে সরাসরি চলে যেতে পারো এই লিঙ্কে: www.10minuteschool.com/admissions/live/

১০ মিনিট স্কুলের ব্লগের জন্য কোনো লেখা পাঠাতে চাইলে, সরাসরি তোমার লেখাটি ই-মেইল কর এই ঠিকানায়: [email protected]

লেখাটি ভালো লেগে থাকলে বন্ধুদের সঙ্গে শেয়ার করতে ভুলবেন না!
What are you thinking?