যে ৮টি কারণে রাজউক উত্তরা মডেল কলেজে ভর্তি হবে

“মানুষ হওয়ার জন্য শিক্ষা” এই মূলমন্ত্র নিয়েই পথচলা রাজউক উত্তরা মডেল কলেজের প্রতিটি শিক্ষার্থীর। রাজউক কলেজ একজন শিক্ষার্থীকে শুধু পড়াশুনাই শিখায় না, সেইসাথে তাকে একজন সত্যিকারের মানুষ হিসেবে গড়ে তোলার চেষ্টা করে যাতে সে ভবিষ্যতে দেশ ও জাতির জন্য ভালো কিছু করতে পারে, দেশের উন্নতিতে অবদান রাখতে পারে।

দারুণ সব লেখা পড়তে ও নানা বিষয় সম্পর্কে জানতে ঘুরে এসো আমাদের ব্লগের নতুন পেইজ থেকে!

১. ক্যাম্পাস:

ঢাকা শহরের উত্তরা এলাকার ৬ নম্বর সেক্টরের সুন্দর ও নিরিবিলি পরিবেশে ৪.৫ একর জায়গা নিয়ে অবস্থিত রাজউক উত্তরা মডেল কলেজ। প্রধান গেট দিয়ে ক্যাম্পাসে প্রবেশ করলে হাতের বাঁ পাশেই চোখে পড়বে শহীদ মিনার। তারপরেই রয়েছে প্রধান একাডেমিক ভবন। তারপাশেই রয়েছে মসজিদ ও অনেক উন্নত একটি ক্যান্টিন। এর সামনেই আছে বাস্কেটবল কোর্ট। তারপরেই রয়েছে বিশাল খেলার মাঠ। ক্যাম্পাসের সীমানার চারপাশেই রয়েছে সাজানো গাছের সারি। পড়াশোনার জন্য এরচেয়ে ভালো পরিবেশ তুমি খুব কম ক্যাম্পাসেই পাবে।

২. দেশসেরা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান:

ইতোমধ্যে দেশসেরা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান হিসেবে খ্যাতি অর্জন করেছে রাজউক উত্তরা মডেল কলেজ। মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় দেশসেরা বিদ্যাপীঠও হয়েছে অনেকবার। বিভিন্ন প্রতিযোগিতা ও প্রোগ্রামেও রয়েছে এই প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের অনেক সাফল্য।

৩. দেশসেরা শিক্ষক:

শিক্ষক হচ্ছেন মানুষ গড়ার কারিগর। আর এই প্রতিষ্ঠানে রয়েছেন দেশের সেরা সব শিক্ষকরা। এই অভিজ্ঞ ও দক্ষ শিক্ষকদের ফলপ্রসূ পাঠদান, মানসম্মত প্রশ্নপত্র প্রণয়ন, উত্তরপত্রের সঠিক মূল্যায়ন, দিকনির্দেশনা ও নিবিড় পর্যবেক্ষণের কারণে শিক্ষার্থীরা অন্যান্যদের চেয়ে অনেকাংশেই এগিয়ে যায়। যার ফলে তারা প্রতিবার পরীক্ষায় ভালো ফলাফলও করে থাকে।

৪. পাঠদানের আধুনিক পদ্ধতি:

প্রতিটি ক্লাসেই রয়েছে শিক্ষাসহায়ক আধুনিক অনেক উপকরণ। মাল্টিমিডিয়া বা অডিও ভিজুয়াল ডিভাইস ব্যবহারের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের কঠিন ও জটিল টপিকগুলো বুঝানো হয়। যার ফলে জটিল টপিকগুলোও খুব সহজেই শিক্ষার্থীদের দখলে চলে আসে।

ইংরেজি শিখ মজার উপায়ে!

তোমার স্বপ্নের পথে পা বাড়ানোর ক্ষেত্রে তোমার ইংরেজির জ্ঞান কার্যকরী ভূমিকা রাখতে পারে!

তাই আর দেরি না করে, আজই ঘুরে এস ১০ মিনিট স্কুলের এই এক্সক্লুসিভ প্লে-লিস্টটি থেকে!

১০ মিনিট স্কুলের ইংরেজি ভিডিও সিরিজ

৫. ক্লাব ও ফেস্ট:

তুমি শিক্ষা সম্পর্কিত যেই ধরনের ক্লাব চাও প্রায় সবগুলোই পাবে রাজউক কলেজে। পড়াশুনার বাইরেও ফটোগ্রাফি ক্লাব, সোশাল সার্ভিস ক্লাবের মতো আরো অন্যান্য অনেক ক্লাবও রয়েছে। প্রতিবছরই কলেজে বিভিন্ন ধরনের ফেস্ট আয়োজন করা হয় যাতে সারাদেশের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করে থাকে। এর মাধ্যমে একজন শিক্ষার্থীর পড়াশুনার পাশাপাশি অন্যান্য বিষয়েও অনেক দক্ষতা তৈরি হয়।

রাজউক কলেজ শুধু একটি প্রতিষ্ঠান নয়, রাজউক হলো একটি পরিবার

৬. কালচারাল প্রোগ্রাম:

বিভিন্ন দিবস, পহেলা বৈশাখ, নবীনবরণ সহ অন্যান্য প্রোগ্রামগুলো খুব বড়সড় ভাবে পালন করা হয় এখানে। এছাড়াও সব ক্লাসেরই Talent Show নামক একধরণের কালচারাল প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত হয়, যা রাজউকিয়ানদের কাছে অনেক প্রিয় একটি প্রোগ্রাম। মূলকথা প্রায় সারাবছরই কোন না কোন প্রোগ্রাম হতেই থাকে রাজউকে।

৭. রাজউকিয়ান পরিবার:

রাজউক কলেজ শুধু একটি প্রতিষ্ঠান নয়, রাজউক হলো একটি পরিবার। যেখানে শিক্ষক-শিক্ষিকা, স্টাফ, কর্মচারী, বর্তমান ছাত্রছাত্রী, প্রাক্তন ছাত্রছাত্রী সবাই একটা কানেকশনের মধ্যে থাকে। সবাই যেকোন প্রয়োজনে একে অন্যের পাশে দাঁড়ায়। পুরো একটি পরিবারের মতো এখানে সবার মধ্যে পারস্পরিক খুব ভালো একটি সম্পর্ক থাকে।

তোমার স্বপ্নের পথে পা বাড়ানোর ক্ষেত্রে তোমার ইংরেজির জ্ঞান কার্যকরী ভূমিকা রাখতে পারে! তাই আর দেরি না করে, আজই ঘুরে এসো ১০ মিনিট স্কুলের এই এক্সক্লুসিভ প্লে-লিস্টটি থেকে!

৮. অনুপ্রেরণার ভাণ্ডার:

দেশের প্রখ্যাত ভার্সিটিগুলোর ভর্তি পরীক্ষার মেধাতালিকায় চোখ রাখলেই তুমি রাজউকিয়ানদের সাফল্য দেখতে পাবে। এছাড়াও দেশের প্রতিটি ক্ষেত্রেই, প্রতিটি জায়গায়ই তুমি পেয়ে যাবে কমপক্ষে একজন রাজউকিয়ান। যাদের থেকে সবসময় তুমি প্রায় সবধরণের সহযোগিতা পাবে। এছাড়া দেশের বাইরেও রয়েছে রাজউকিয়ানদের অনেক সাফল্য।

সবশেষে এতটুকু বলতে পারি, রাজউক কলেজ তোমাকে পড়াশুনার পাশাপাশি উপহার দিবে জীবনের অন্যতম সেরা কিছু সময়। আর তোমাকে গড়ে তুলবে একজন সত্যিকারের মানুষ হিসেবে। রাজউক উত্তরা মডেল কলেজ জীবন সংগ্রামের পথে তোমাকে অনেকটাই এগিয়ে দিবে। তোমাকে পৌঁছে দিবে তোমার স্বপ্নের অনেক কাছাকাছি। তোমাদের জন্য শুভকামনা রইলো। রাজউকিয়ান পরিবারে তোমাদের স্বাগতম।


১০ মিনিট স্কুলের লাইভ এডমিশন কোচিং ক্লাসগুলো অনুসরণ করতে সরাসরি চলে যেতে পারো এই লিঙ্কে: www.10minuteschool.com/admissions/live/

১০ মিনিট স্কুলের ব্লগের জন্য কোনো লেখা পাঠাতে চাইলে, সরাসরি তোমার লেখাটি ই-মেইল কর এই ঠিকানায়: write@10minuteschool.com

লেখাটি ভালো লেগে থাকলে বন্ধুদের সঙ্গে শেয়ার করতে ভুলবেন না!
What are you thinking?