সেরা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তনে


পুরোটা পড়ার সময় নেই? ব্লগটি একবার শুনে নাও।

জীবনের যে কোন ক্ষেত্রে সফলতা অর্জনের জন্য পরিশ্রমের সাথে যে বিষয়গুলো অথবা যে কথাগুলো সফলতা অর্জনের জন্য, কাজ করার ক্ষেত্রে অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করে, সেই কথাগুলো বা উক্তিগুলো জীবনের পাথেয় হিসেবে রয়ে যায়। আর তাই বিখ্যাত মনিষীদের উক্তি জীবন সম্পর্কে ধারণা পাল্টে দেবার জন্য যথেষ্ট।

অনুপ্রেরণামূলক উক্তিগুলো পড়াশোনা থেকে শুরু করে যেকোনো কাজ নতুন উদ্যমে শুরু করার জন্য কার্যকর ভূমিকা রাখে। নিঃসন্দেহে যেকোন অনুপ্রেরণামূলক উক্তি তোমার জ্ঞানের ভান্ডারকে শুধু সমৃদ্ধ নয়, বরং উদ্যমী হয়ে পড়াশোনা বা কাজের জন্য অনুপ্রেরণা যোগাবে।

মাঝেমধ্যেই আমাদের পড়তে বসতে ইচ্ছে করে না, অথবা কোন কাজ করতে মন চায় না বা খুব বিষণ্ণ লাগে অথবা কোন কাজের জন্য অনুপ্রেরণা খুঁজে পাওয়া যায় না। বিখ্যাত মনীষীদের উক্তি হতে পারে তোমার জীবনে এরকম সময়ে সর্বোত্তম সমাধান। যখনই মনে হবে, আমাকে দিয়ে কিচ্ছু হবে না অথবা নানান রকম মানসিক বাধা তোমার কাজের গতিকে ধীর করে দেবে, সে সময় বিখ্যাত এসব উক্তি তোমার মানসিক অবস্থা স্থিতিশীল করার জন্য নিরাময়কারী ওষুধ হিসেবে কাজ করবে।

বিভিন্ন সময় বিভিন্ন মনীষীদের বিখ্যাত উক্তিগুলো তাদের জীবনে নানান রকম পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে দেওয়া। আর তাই এই উক্তিগুলো আমাদের জীবনের অনেক পরিস্থিতির সাথে মিলে যায়। একজন অভিজ্ঞ মানুষের সবচেয়ে মূল্যবান বিষয় হলো তার অভিজ্ঞতা। মানুষ জীবনে ভুল করে, ভুল থেকে শিক্ষা নেয় এবং সেই শিক্ষাগুলো জীবনে কাজে লাগিয়ে একজন ভালো মানুষ
হবার প্রচেষ্টায় থাকে।

অভিজ্ঞ মানুষ তাদের অভিজ্ঞতা আমাদের জানানোর চেষ্টা এজন্যই করেন যাতে আমরা পুনরায় একই রকম ভুল না করি।অনেক আগে গ্রামে অভিজ্ঞ মানুষেরা গল্প শোনাতো, শেখানোর চেষ্টা করতো কীভাবে জীবনকে আরো বেশি সমৃদ্ধ করা
যায়। এখন বলা যেতে পারে সেই গল্পগুলো নতুনভাবে সংক্ষিপ্তরূপে আমাদের সামনে উক্তি হিসেবে এসেছে। আর তাই বিখ্যাত মানুষের, অভিজ্ঞ মানুষের বিখ্যাত উক্তিগুলো নিঃসন্দেহে জীবনকে আরো বেশি সমৃদ্ধ করতে সহায়তা করবে।

জেনে নিতে পারো বিভিন্ন ইউনিভার্সিটির সমাবর্তনে বিখ্যাত ব্যক্তিদের কিছু বিখ্যাত উক্তি যা বদলে দেবে তোমার জীবন ধারণা।

আমরা প্রায়ই টেনশনে পড়ে যাই আমাদের ক্যারিয়ার নিয়ে, ভবিষ্যত নিয়ে। এই টেনশন থেকে মুক্তি পেতে চাইলে ঝটপট ঘুরে এসো ১০ মিনিট স্কুলের এই এক্সক্লুসিভ প্লে-লিস্ট থেকে!

১.Steve Jobs: Stanford University, 2005


তুমি কখনোই সামনের দিকে তাকিয়ে বিন্দুগুলো সংযুক্ত করতে পারবেনা। অবশ্যই তোমাকে সেজন্য পেছনে তাকাতে হবে এবং তোমাকে বিশ্বাস রাখতে হবে এই বিন্দুগুলোই কোন না কোনভাবে তোমার ভবিষ্যতকে সফলতার সাথে সংযুক্ত করবে। তোমাকে সবকিছুতেই বিশ্বাস রাখতে হবে। তোমার জীবন, কর্মফল, ভাগ্য সবকিছু। আর এই বিশ্বাসই তোমাকে তোমার আকাঙ্ক্ষিত ভবিষ্যতের দিকে নিয়ে যাবে।

২. Ellen DeGeneres: Tulane University, 2009


সফলতার সংজ্ঞা পরিবর্তিত হয়েছে। সফলতা হচ্ছে সততার সাথে জীবনযাপন করা এবং এমন কোন কিছুতে গুরুত্ব না দেয়া যা তোমার জন্য না। নিজের সাথে সৎ থাকো, সেইসাথে অপরের দেখানো রাস্তাই সবসময় অনুসরণ করো না, নাহলে নিজেকে হারিয়ে ফেলার সম্ভাবনা রয়েছে।

ঘুরে আসুন: বিনোদনের মুখোশে ৮ Time killer

৩. Denzel Washington: University of Pennsylvania, 2011

ঝুঁকির চেয়ে জীবনের উপযুক্ত আর কিছু নেই। প্রতিটি ঝুঁকির ব্যর্থতা সফলতার দিকে এক ধাপ এগিয়ে নিয়ে যায়। তোমাকে ঝুঁকি নিতে হবে। জীবনে কিছু ক্ষেত্রে হয়তো তুমি ব্যর্থ হবে, সেটাকে গ্রহণ কর। তুমি হেরে যাবে, বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়বে, কোন কোন ক্ষেত্রে তুমি হয়তো খুব বাজে পরিস্থিতির সম্মুখীন হবে।

এতে কোন সন্দেহ নেই জীবনের সব ক্ষেত্রেই তুমি এসকল পরিস্থিতিতে পড়বে তাই বলে নিজেকে নিরুৎসাহিত করো না। পেছন ফিরে তাকিও না। জীবনে যখন যখন তুমি ব্যর্থ হবে, যখনই নিচে পড়ে যাবে তখনি উঠে দাঁড়াবে আর সামনে এগিয়ে যাবে।

৪. Shonda Rhimes: Dartmouth, 2014

তুমি একজন লেখক হতে চাও? একজন লেখক প্রতিদিন লিখালিখি করে। লেখক হতে হলে লেখালেখি শুরু করে দাও। তোমার হাতে চাকরি নেই? যে কোনো কাজ খুঁজে বের করো। ঘরে বসে জাদুকরী কোনো সুযোগের অপেক্ষা করো না। কে তুমি? প্রিন্স উইলিয়াম? না, যে কোন কাজ খুঁজে বের কর, কাজে যাও। কিছু একটা করতে থাকো যতক্ষণ না পর্যন্ত তুমি অন্য কিছু করতে পারো।

৫. Tim Minchin: University of Western Australia, 2013

আমেরিকানরার ট্যালেন্ট শোতে সব সময় তাদের স্বপ্নের ব্যাপারে বলে। আমার কোনো বড় স্বপ্ন ছিল না। আর তাই আমি অনেক বেশি উৎসাহী এবং পরিশ্রমী ছিলাম আমার ছোট লক্ষ্যগুলো পূরণ করার জন্য। ছোট উচ্চাকাঙ্ক্ষী হও। মাথা নত কর এবং গর্বের সাথে তোমার সামনে যা আছে সে কাজগুলোই করে যাও। তুমি জানো না এই ছোট ছোট কাজ গুলো শেষ পর্যন্ত তোমায় কই নিয়ে যাবে। শুধু সচেতন থেকো তোমার মূল্যবান কাজগুলো যেন তোমার পরিধির ভেতরেই থাকে। কারণ তোমাকে দীর্ঘমেয়াদী স্বপ্নের জন্যও সচেতন থাকতে হবে। তুমি যদি সব সময় খুব দূরে তোমার দৃষ্টিকে নিয়ে যেতে চাও তাহলে তোমার ঠিক আশেপাশেই উজ্জ্বল জিনিসগুলো তুমি দেখতে পাবে না।

বেড়িয়ে আসুন নিজের খোলস থেকে!

কর্পোরেট জগতে চাকরির ক্ষেত্রে কিছু জিনিস ঠিকঠাক রাখা অত্যন্ত জরুরি।

বিস্তারিত জানতে ঘুরে আসুন ১০ মিনিট স্কুলের এক্সক্লুসিভ এই প্লে-লিস্টটি থেকে। 😀

১০ মিনিট স্কুলের Presentation Skills সিরিজ

৬. J.K. Rowling: Harvard University, 2008

ব্যর্থতা হলো অপ্রয়োজনীয় বিষয় গুলো দূরে সরে যাওয়া। আমি এটা ভাবা বন্ধ করে দিয়েছিলাম আমি আসলে, যা আমি তাইই আছি। এবং আমি সে সমস্ত কাজে আরও বেশি মনোযোগী হলাম যে কাজগুলো আমার কাছে অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। আমি কি আসলেই কোন কিছুতে সফল হতে পেরেছি? সফলতার সংকল্প একটা জায়গায় খুঁজে পাওয়া সম্ভব নয়, যে জায়গাটা থেকে আমি সত্যিই নিজের অবস্থান খুঁজে পাই। আর তাই আমি নিজেকে মুক্ত করে দিলাম, কারণ আমার সবচেয়ে বড় ভীতির জায়গাটা আমি খুঁজে পেয়েছিলাম। এবং আমি বেঁচে ছিলাম, আমার একটা মেয়ে ছিলো, যাকে আমি সবচেয়ে বেশি ভালোবাসতাম এবং আমার একটি বড় স্বপ্ন ছিলো। আর এরকম শিলা পাহাড়ময় রাস্তাগুলোই আমার শক্ত একটি ভিত্তি তৈরি করেছিলো,যেখান থেকে নিজেকে আমি পুনঃনির্মিত করতে পেরেছি।

৭. Joss Whedon: Wesleyan University, 2013

বর্তমান পৃথিবীতে বিতর্ক বিষয়টি দূরে সরে গিয়েছে এবং স্থান হয়েছে চিৎকার চেচামেচির এবং জড়াজড়ি করে অবস্থান তৈরি করার যুদ্ধ। সবচেয়ে ভাল বুদ্ধি হলো বিতর্ক করা নয়, বরং বিতর্কে হেরে যাওয়া। হেরে যাবার মানে হলো তুমি নতুন কিছু শিখতে পারবে এবং নিজের নতুন অবস্থান তৈরি করতে পারবে। নিজের অবস্থান ভালোভাবে জানবার উত্তম পন্থা হচ্ছে অপরপক্ষকে ভালোভাবে বুঝতে হবে। অপরপক্ষকে জানার প্রয়োজন এই জন্য কারণ তুমি কোন না কোনভাবে তাদের সাথে জড়িত। তুমি কখনোই এই বিষয়টি থেকে দৌড়ে পালাতে পারবে না।

৮.Jon Bon Jovi: Monmouth University, 2001

কোন কিছু করার প্রচণ্ড ইচ্ছার চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ আর কিছুই হতে পারে না। তুমি জীবনের যাই হতে চাও না কেন অথবা যা করতে চাও না কেন তোমাকে অবশ্যই অনেক ইচ্ছাশক্তি রাখতে হবে। পৃথিবীর আর ধূসর রংয়ের প্রয়োজন নেই, আবার অপরদিকে খুব বেশি রঙিন কিছুও আমরা পাচ্ছি না। মাঝামাঝি অবস্থানে থেকে কিছু করতে পারার ইচ্ছাটা কারো লক্ষ্য হতে পারে। মনে রেখো একটি বিষয়, ইচ্ছা+অধ্যবসায় = সম্ভাবনা।

ঘুরে আসুন:  সময় বাঁচানোর সবথেকে কার্যকরী কৌশল!

৯. Frank McCourt: Syracuse University, 2007

গতবছর সান ফ্রান্সিসকোতে এক মহিলা আমাকে বলল, সে শিক্ষিকা হতে যাচ্ছে, আমার তাকে কোনো উপদেশ দেবার আছে কিনা। ঠিক ওই মুহূর্তে আমি শুধু একটি বিষয় ভাবতে পারলাম। আমি তাকে বললাম, যা তুমি করতে ভালোবাসো তা খুঁজে বের করো এবং সে কাজটিই করো। তুমি যা করতে ভালোবাসো না, যদি তুমি তা করো তাহলে তুমি জীবনশূন্য হয়ে যাবে। ইন্সুরেন্স করে ফেলো, কেননা যা করতে তুমি ভালোবাসো না সে
কাজটি করা মরে যাবার সমান।

কোন সমস্যায় আটকে গেছ? প্রশ্ন করার মত কাউকে খুঁজে পাচ্ছ না? ঘুরে এসো আমাদের লাইভ গ্রুপ থেকে!

১০.Anna Quindlen: Villanova University, 2000

কখনোই এ দু’টি বিষয়ের মধ্যে গুলিয়ে যেও না- তোমার জীবন এবং তোমার কাজ। মনে রেখো দ্বিতীয় বিষয়টি প্রথম বিষয়ের একটি অংশমাত্র।

১১. Maria Shriver: USC Annenberg School of Communication, 2012

আমি আশা করি তোমরা যদি আজকে কিছু শিখতে পারো তাহলে তা তোমরা আসলেই শিখতে পারবে এবং মনে রাখতে পারবে। বিরতি নেবার শক্তিকে অনুধাবন করতে হবে। বিরতি তোমাকে জীবনে নিঃশ্বাস নেওয়ার শেখাবে, একধাপ এগিয়ে যাওয়া শেখাবে। সবাই যেখানে বিরামহীনভাবে ছুটছে আমি বলব তুমি সেখানে একটু বিরতি নাও। সবাই যা করছে তার বিপরীতটা করো। মনে রেখো বিরতি নিলেই নিজের মেধাগুলোকে প্রতিফলিত করাতে পারবে।


১০ মিনিট স্কুলের লাইভ এডমিশন কোচিং ক্লাসগুলো অনুসরণ করতে সরাসরি চলে যেতে পারো এই লিঙ্কে: www.10minuteschool.com/admissions/live/

১০ মিনিট স্কুলের ব্লগের জন্য কোনো লেখা পাঠাতে চাইলে, সরাসরি তোমার লেখাটি ই-মেইল কর এই ঠিকানায়: write@10minuteschool.com

লেখাটি ভালো লেগে থাকলে বন্ধুদের সঙ্গে শেয়ার করতে ভুলবেন না!
Author

Nusrat Jahan

I love to read books as a hobby. Alongside watching movies is my favourite leisure activity. I love to write which is something I am very passionate about .My aim is to work in the field of marketing. I am currently doing BBA from University of Asia Pacific.
Nusrat Jahan
এই লেখকের অন্যান্য লেখাগুলো পড়তে এখানে ক্লিক করুন
What are you thinking?