বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের যেই বইগুলো পড়া উচিত

পুরোটা পড়ার সময় নেই ? ব্লগটি একবার শুনে নাও !

বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ছেন এবং স্টার্ট-আপ কিংবা উদ্যোক্তা বা সোশ্যাল ইনোভেশনে আগ্রহী শিক্ষার্থীদের সামনের জীবনের ক্যারিয়ার কিংবা নিজের আগ্রহের কাজে ইতিবাচক অনুপ্রেরণা আনার জন্য কিছু বই পড়ার জন্য পরামর্শ দিতে পারি। আমি নিজে তেমন বিশেষজ্ঞ না, কিন্তু আশেপাশের তরুণ উদ্ভাবক-উদ্যোক্তাদের কাছ থেকে নানান সময়ে নানান বই পড়ার পরামর্শ পেয়ে থাকি।

সেই পরামর্শগুলো থেকেই মূলত বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ২০১৭ সালে যেই বইগুলো পড়া উচিত তা নিয়ে একটি লিস্ট তৈরি করার চেষ্টা করলাম। এখানে বেশির ভাগ বই-ই আমার পড়া, তাই গুরুত্ব বোঝানোর জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের বেশ আলোচিত শিক্ষার্থী যারা যে বই পড়েছেন তাদের রেফারেন্স যোগ করেছি।

ডেলিভারিং হ্যাপিনেস
লেখক: টনি সিয়েহ

“ই-কমার্স বিষয়ে যারা আগ্রহী কিংবা নিজের স্বপ্নের পেছনের দৌড়ানোর কারণ সম্পর্কে যারা জানতে চায় তাদের জন্যই এই বই।”
–বিপাশা মতিন, মার্কেটিং ০৭/০৮

দারুণ সব লেখা পড়তে ও নানা বিষয় সম্পর্কে জানতে ঘুরে এসো আমাদের ব্লগ সেকশন থেকে!

যে কারণে আমি পড়তে বলি: ২০১৫ সালে আমি এই বইটি পড়ি। অসাধারণ একটা বই। সেই ১৯৯৯ সালে জ্যাপোস নামের একটা স্বপ্নকে দিয়ে পৃথিবী বদলানোর চেষ্টা করে যাচ্ছেন টনি সিয়েহ। স্টার্টআপ দুনিয়ার কর্পোরেট কালচার কি হওয়া উচিত তা জানতে এই বইটার প্রতি পাতাতেই নতুন গল্প আছে কিন্তু!

লিন ইন
লেখক: শেরিল স্যান্ডবার্গ

“ইম্পোস্টার সিনড্রোমের সঙ্গে শেরিলের লড়াই আর ‘fake it till you make it’ মনোভাব সম্পর্কে জানতে বইটি পড়তেই হবে।”
–রুহিনা তাসকিন, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা
যে কারণে আমি পড়তে বলি: ঘাড়ের উপরে দাড়ানো বলে একটা শব্দ আছে, সেটা শেরিল স্যান্ডবার্গের এই বইটা না পড়লে আমি জানতাম না।

জিরো টু ওয়ান
লেখক: পিটার থেয়েইল


“পারফেক্ট এন্ট্রারপ্রেনিয়ার সেন্স ডেভলপের জন্য পিটার থেয়েইলকে অনুসরণ করতেই হবে।”
–সাইমুম হোসেন, ফিন্যান্স ০৮/০৯
যে কারণে আমি পড়তে বলি: এই বইটা পড়ে আমি ছয়টা প্রশ্ন খুঁজে পেয়েছিলাম, দারুণ একটা বই।

এবার বাংলা শেখা হবে আনন্দের!

আমাদের প্রতিটি প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় বাংলা ভাষা চর্চার গুরুত্ব অপরিসীম!

তাই আর দেরি না করে, আজই ঘুরে এস ১০ মিনিট স্কুলের এক্সক্লুসিভ বাংলা প্লে-লিস্টটি থেকে!

১০ মিনিট স্কুলের বাংলা ভিডিও সিরিজ

টেড টকস
লেখক: ক্রিস অ্যান্ডারসন


টেড টকসের পেছনের মানুষদের পায়ে চলার গল্প আছে বইটিতে।
–উষান আরা বাদল, আন্তর্জাতিক সম্পর্ক

গ্রিট
লেখক: অ্যাঞ্জেল ডাকওয়ার্থ


প্যাশন আর ধৈয্যই যে সামনে এগিয়ে যাওয়ার বিজ্ঞান তাই এই বইয়ে ডাকওয়ার্থ বেশ পরিচ্ছন্ন ভাষায় লিখেছেন।
–নিগার সুলতানা ইপু, ইইই

আমি আরও যা যা রেফার করতে চাই

কোনো সমস্যায় আটকে আছো? প্রশ্ন করার মত কাউকে খুঁজে পাচ্ছ না? যেকোনো প্রশ্নের উত্তর পেতে চলে যাও ১০ মিনিট স্কুল লাইভ গ্রুপটিতে!

১. জবস: স্টিভ জবসের বায়ো না পড়লে কিভাবে দুনিয়া বদলাতে যে কিছুই লাগে না সেটা বোঝা যাবে না।
১.১ দ্য প্রেজেন্টেশন সিক্রেটস অব স্টিভ জবস

 

২. শ্যু ডগ, ফিল নাইট

 

৩. ডিসিপ্লিন্ড এন্টারপ্রেনারশিপ

৪. দ্য আর্ট অব স্টার্ট, গাই কাওয়াসাকি

আর দেরি না করে বইগুলো পড়া শুরু করে দাও এবং তোমাদের বন্ধুদের সাথে লেখাটি শেয়ার করে জানিয়ে দাও! 😀


১০ মিনিট স্কুলের লাইভ এডমিশন কোচিং ক্লাসগুলো অনুসরণ করতে সরাসরি চলে যেতে পারো এই লিঙ্কে: www.10minuteschool.com/admissions/live/

১০ মিনিট স্কুলের ব্লগের জন্য কোনো লেখা পাঠাতে চাইলে, সরাসরি তোমার লেখাটি ই-মেইল কর এই ঠিকানায়: write@10minuteschool.com

লেখাটি ভালো লেগে থাকলে বন্ধুদের সঙ্গে শেয়ার করতে ভুলবেন না!
What are you thinking?