প্রমোশন দ্রুত পাওয়ার ২০টি বুলেট টিপস!

পুরোটা পড়ার সময় নেই ? ব্লগটি একবার শুনে নাও !

দ্রুত প্রমোশন পাওয়াটা সব চাকুরিজীবীরই আজন্ম আরাধ্য সাধ। কিন্তু চাইলেই তো আর দ্রুত প্রমোশন পাওয়া যায় না, এর জন্যে সঠিক উপায়ে চাকুরি করতে হয়। তাই প্রমোশন পাওয়ার খুব তাড়া থাকলে দেখে নিতে হবে এই ২০টি টিপস।

১। অনেকে মনে করতে পারেন, বসের সাথে চাটুকারিতা করাই মনে হয় ক্যারিয়ারে উপরে ওঠার একমাত্র উপায়, কিন্তু আমি এর সাথে সম্পূর্ণ দ্বিমত। বরং আপনি আপনার বসের কাজ সহজ করে দিন। বস যেভাবে চাচ্ছেন সেভাবে কাজ করুন। বসকে সাহায্য করুন।

২। নিজের কাজগুলো সময়মত শেষ করুন, ডেডলাইনের আগেই কাজ শেষ করে রাখুন। সেই সাথে পাশের কলিগকে তার কাজে সহযোগিতা করুন। মনে রাখবেন, অপরকে সাহায্য করলে নিজের গুরুত্ব বাড়ে। যে কাজ জানে, লোক তার কাছেই যায়। তারই উন্নতি হয় যে নিজে কাজ জানে, কাজ করে, অন্যকে সাহায্য করে, অন্যকে কাজ শিখায় ও অন্যের কাছ থেকে কাজ আদায় করে নিতে পারে।

৩। পিয়ন, ড্রাইভার, দারোয়ান- এদের সাথে বাজে ব্যবহার করবেন না। গাল-মন্দ করে কাজ আদায় করা যায় না। সম্মান দিতে শিখুন। তাহলেই সম্মান পাবেন।

দারুণ সব লেখা পড়তে ও নানা বিষয় সম্পর্কে জানতে ঘুরে এসো আমাদের ব্লগের নতুন পেইজ থেকে!

৪। আপনার কাজের ফলাফল যাতে সকলের চোখে পড়ে সেভাবে কাজ করুন।

৫। নিজের কাজের ফলাফলগুলো পরিমাপযোগ্য ভাবে সকলের সামনে তুলে ধরুন।

৬। অন্যরা কে কী কাজ করছে সেগুলো সম্পর্কে জানুন। নিজে যা জানেন সেটা অন্যকে শেখান।

10 Minute School Career

৭। কোম্পানির প্রোডাক্ট বুঝুন, সার্ভিস বুঝুন, নিয়ম-কানুন সম্পর্কে জানুন। কোথাও কোন উন্নতি করার সুযোগ আছে কী না দেখুন। আইডিয়া দিন যাতে কোথাও খরচ কমে, আয় বাড়ে।

৮। কীভাবে কোম্পানির বিক্রি বাড়ানো যায় সেই আইডিয়া দিন, নতুন কাস্টমার তৈরিতে সহায়তা করুন। আপনি যেই ডিপার্টমেন্টেই থাকুন না কেন, এসব ব্যাপারে সহায়তা করুন।

৯। অন্যকে ইমপ্রেস করতে হলে নিজেকে এক্সপ্রেস করতে হয়। কাজেই, নিজের প্রেজেন্টেশন স্কিল ভালো করুন।

কাজ-কর্মের মাধ্যমে নিজের প্রতিভা তুলে ধরুন

১০। এক্সেল, ওয়ার্ড, পাওয়ার পয়েন্ট, ফটোশপ, এডিটিং এর কাজ শিখুন। এগুলো আপনাকে বসের অনেক কাছে নিয়ে যাবে। স্টুডেন্ট লাইফেই এসবের উপরে কোর্স করে রাখবেন।

১১। ট্রেনিং করুন, নিজে শিখুন, অন্যকে শিখান, আবার নিজে নতুন কিছু শিখুন। ক্যারিয়ারে উন্নতি ততই হবে যতই আপনি জানবেন, শিখবেন ও শিখাবেন।

 
ব্যাকরণ বুঝে নাও সহজ উপায়ে!

১২। এক্সেপশনাল হোন, আপনি কি অরডিনারি নাকি এক্সট্রা-অরডিনারি তা বোঝা যাবে আপনি কতটুকু এক্সট্রা কাজ করছেন তা থেকে।
১৩। অফিসে নোংরা রাজনীতির চেষ্টা করবেন না। বাজে শব্দ ব্যবহার করবেন না।

১৪। পরনিন্দা করবেন না, একজনের দোষ আরেকজনকে বলবেন না। তাহলে, উভয় ক্ষেত্রেই আস্থা হারাবেন। বরং, সকলকে সম্মান করবেন, কাজের প্রশংসা করবেন। কেউ ভুল করলে গোপনে শুধরে দিবেন। কেউ ভুল করলে তাকে সবার সামনে ডেকে এনে অপমান করলে আপনাকে কিন্তু কেউ ভালোভাবে নিবে না।

১৫। কোম্পানির নিয়মের প্রতি শ্রদ্ধাশীল থাকুন, নিয়ম বহির্ভূত কোন কাজ করবেন না।

১৬। কাউকে বাড়তি সুযোগ দেওয়া থেকে বিরত থাকুন। কোম্পানিতে স্বজনপ্রীতি করবেন না।

১৭। নিজের কাজ নিয়ে গর্বিত থাকবেন। যখন আপনি খুশিমনে কাজ করবেন, তখন আপনার কাছে আপনার কাজ আর বোঝা বলে মনে হবে না।

১৮। সততার সাথে কাজ করুন, সকলের আস্থার মানুষ হিসেবে নিজেকে তুলে ধরুন।

১৯। অফিসে সময় মত যাবেন, দেরি করবেন না।

২০। কাজ-কর্মের মাধ্যমে নিজের প্রতিভা তুলে ধরুন, লোকে এমনিতেই বুঝবে, আপনার প্রমোশন দরকার এবং আপনিই এর একমাত্র যোগ্য দাবিদার। কথায় নয়, কাজেই নিজেকে প্রমাণ করে দিন।


১০ মিনিট স্কুলের লাইভ এডমিশন কোচিং ক্লাসগুলো অনুসরণ করতে সরাসরি চলে যেতে পারো এই লিঙ্কে: www.10minuteschool.com/admissions/live/

১০ মিনিট স্কুলের ব্লগের জন্য কোনো লেখা পাঠাতে চাইলে, সরাসরি তোমার লেখাটি ই-মেইল কর এই ঠিকানায়: [email protected]

লেখাটি ভালো লেগে থাকলে বন্ধুদের সঙ্গে শেয়ার করতে ভুলবেন না!
What are you thinking?