রাইটার্স ব্লক থেকে মুক্তি পাবার ৬ কৌশল!

পুরোটা পড়ার সময় নেই? ব্লগটি একবার শুনে নাও।

আমরা অনেকেই গল্প, গান বা কবিতা লিখতে ভালোবাসি। লেখালেখির এই প্রতিভা আমাদের অনেকের মাঝেই আছে যারা খাতা কলম নিয়ে লিখতে বসলেই দারুণ কিছু হয়ে যায়! তাছাড়া এখনকার সৃজনশীল প্রশ্ন পদ্ধতিতে পরীক্ষা দিতে অনেক সময় হলে বসেই উপস্থিত বুদ্ধি আর তোমার এই প্রতিভা থেকেই বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর লিখতে হয়।

আচ্ছা, কখনো কি এমন হয়েছে যখন অনেক চেষ্টা করেও কিছু লিখতে পারো নি ? যারা গল্প বা কবিতা লিখো তারা কি কখনো লিখতে না পারার সমস্যার সম্মুখীন হয়েছো? কখনো কি পরীক্ষার খাতায় সৃজনশীল কোনো উত্তর লেখার পর মনে হয়েছে সেটি তোমার মন মতো লিখতে পারলে না?

দারুণ সব লেখা পড়তে ও নানা বিষয় সম্পর্কে জানতে ঘুরে এসো আমাদের ব্লগ সেকশন থেকে!

জেনে রেখো, শুধু তুমি নও বরং এডেল, জোসেফ মিচেল, এফ. স্কটসহ পৃথিবীর বিখ্যাত অনেক কবি, সাহিত্যিক, গীতিকার তোমার মতোই হঠাৎ এই লিখতে না পারার সমস্যার সম্মুখীন হয়েছেন। ১৯৪৭ সালে সাইকোএনালিস্ট এডমান্ড এই সমস্যাটিকে ব্যাখ্যা করেন যা এখন রাইটার্স ব্লক নামে পরিচিত।

শারীরিক, মানসিক নানা কারণে তোমার সৃজনশীল লেখালিখির প্রতিভা রাইটার্স ব্লকের মাধ্যমে বাঁধাগ্রস্থ হতে পারে। কিন্তু এই সমস্যার সমাধান কী ? সেটি জানতে এই লেখাটি পড়ে ফেলো এখনই!

৬। ব্রেক নাও

হ্যাঁ, একটানা অনেকদিন বা অনেকক্ষণ না লিখে বরং একটা ব্রেক নাও। আমরা অনেকক্ষণ ধরে যখন কোনো কাজ করি, একটি নির্ধারিত সময়ের পর আমাদের মস্তিষ্ক ধীর হতে থাকে। একঘেয়েমি তৈরি হয়। অর্থাৎ, অনেকক্ষণ ধরে লিখতে থাকলে এক পর্যায়ে লেখার জন্য শব্দ খুঁজে নিতে বেগ পেতে হতে পারে।

এমন কিছু করো যা তোমার মধ্যে সৃজনশীলতার চর্চাকে বাঁচিয়ে রাখবে

তাই, একটানা অনেক সময় নিয়ে না লিখে মাঝে মাঝে ছোট ছোট বিরতি নাও। এতে ক্লান্ত মস্তিষ্ক পুনরায় নতুন উদ্যমে চিন্তা করার সুযোগ পাবে যা তোমাকে শব্দ বা ছন্দ খুঁজে পেতে সহায়তা করবে।

ঘুরে আসুন: ১২টি বিষয় যা বলে দিবে, তুমি লেখক হতে পারবে কি না!

৫। প্রচুর বই পড়ো

ভালো লিখতে হলে প্রচুর বই পড়তে হবে। বই পড়ার মাধ্যমে শুধু যে তোমার জ্ঞান বৃদ্ধি পাবে তাই নয়, তুমি নতুন নতুন শব্দ এবং অর্থ জানতে পারবে। তোমার শব্দভাণ্ডার হয়ে উঠবে সুবিশাল এবং সমৃদ্ধ। বৃদ্ধি পাবে তোমার কল্পনাশক্তি। তাই পাঠ্যবইয়ের পাশাপাশি বিভিন্ন গল্প, উপন্যাস , প্রবন্ধ  এবং কবিতার বই পড়ো।

৪। সৃজনশীল কাজ করো

লেখালিখি ছাড়াও আরও অনেক সৃজনশীল কাজ রয়েছে যা তোমাকে রাইটার্স ব্লক কাটিয়ে উঠতে সাহায্য করবে। রাইটার্স ব্লকের কারণে যদি লিখতে না পারো তাহলে ছবি আঁকো, প্রোগ্রামিং করো অথবা তোমার ভাল লাগে এমন কিছু যা তোমার মধ্যে সৃজনশীলতার চর্চাকে বাঁচিয়ে রাখবে।

কথায় বলে, MUN is fun!

বর্তমান সময়ের বহুল আলোচিত একটি কম্পিটিশানের নাম MUN বা Model United Nations।

কিন্তু কি এই মডেল ইউনাইটেড নেশন্স? কিভাবে ভালো করতে হয় এটিতে?

নিজেই দেখে নাও এই প্লে-লিস্ট থেকে!
১০ মিনিট স্কুলের MUN সিরিজ!

৩। রুটিন বানিয়ে ফেলো

প্রত্যেকবার একটি নির্ধারিত সময়ে লেখা শুরু করো। যেমন- খুব সকালে বা রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে । প্রতিদিন এই দুই সময়ে কিছু না কিছু লেখার চেষ্টা করো। তাহলে তোমার মস্তিষ্ক প্রতিদিন এই সময়ে লেখার কাজটি করার জন্য সচল হবে এবং এভাবেই সেটি অভ্যাসে পরিণত হবে।

‘ Discipline allows magic. To be a writer is to be the very best of assassins. You do not  sit down and write every day to force the muse to show up, you get into the habit of writing every day.”

-Lili St. Crow

২। ফ্রি রাইটিং করো

কোনো বিষয়ে লিখতে হলে যতিচিহ্ন, বানান ইত্যাদি অনেক কিছু খেয়াল রাখতে হয়। কিন্তু ফ্রি রাইটিং তোমাকে এসব কিছু থেকে মুক্তি দিবে।

এক্ষেত্রে তুমি যা ইচ্ছা লিখতে পারো। এই কাজটির জন্য প্রতিদিন অন্তত ১৫ মিনিট সময় রাখো। অথবা কোনো লেখা শুরু করার আগে কিছুক্ষণের জন্য ফ্রি রাইটিং করে নাও। অনেকটা মাঠে খেলা শুরুর আগে খেলোয়াড়েরা যেমন প্রস্তুতি নেয়, তেমন। এতে করে তুমি তোমার চিন্তাগুলো একত্র করতে পারবে।

ঘুরে আসুন: লেখার হাত ভাল করবে যে উপায়গুলোতে!
রাজধানীর নাম জানাটা সাধারণ জ্ঞানের একটা গুরুত্বপূর্ণ অংশ। তাই ১০ মিনিট স্কুলের এই মজার কুইজটির মধ্যমে যাচাই করে নাও নিজেকে!

১। ডিসট্র্যাকশন থেকে দূরে থাকো

প্রতি ঘণ্টায় একবার ফেইসবুকে লগইন না করলেই নয়? এটি খুব খারাপ একটি অভ্যাস যা তোমাকে প্রতিনিয়ত অমনোযোগী করে তুলছে। তাই মোবাইল, ইন্টারনেট বা এমন কিছু যা তোমাকে খুব সহজেই অমনোযোগী করে তুলবে সেগুলো থেকে দূরে থাকো।

লেখা শুরু করার আগে মোবাইল ফোন সুইচড অফ করে নাও। দেখবে, কোনোরকম ডিসট্র্যাকশন ছাড়াই খুব তাড়াতাড়ি কাজ শেষ করে ফেলতে পারছো।

রাইটার্স ব্লক বিষয়টা শুধু যে লেখকদের হয়, তাই না। সব মানুষেরই এই সমস্যা হতে পারে, আর তার সমাধানটাও জেনে নেয়া জরুরি। আশা করছি এই লেখাটি পড়ার পরে রাইটার্স ব্লকের মতো সমস্যার সহজ সমাধান করে দিতে পারবে সবাই!


১০ মিনিট স্কুলের লাইভ এডমিশন কোচিং ক্লাসগুলো অনুসরণ করতে সরাসরি চলে যেতে পারো এই লিঙ্কে: www.10minuteschool.com/admissions/live/

১০ মিনিট স্কুলের ব্লগের জন্য কোনো লেখা পাঠাতে চাইলে, সরাসরি তোমার লেখাটি ই-মেইল কর এই ঠিকানায়: write@10minuteschool.com

লেখাটি ভালো লেগে থাকলে বন্ধুদের সঙ্গে শেয়ার করতে ভুলবেন না!
Author

Prethee Majbahin

Prethee Majbahin is currently studying at Department of Criminology, University of Dhaka. She is a big fan of detective stories and spends her leisure time reading books. Prethee loves dancing, writing and traveling around the world.
Prethee Majbahin
এই লেখকের অন্যান্য লেখাগুলো পড়তে এখানে ক্লিক করুন
What are you thinking?