রিলেশনশীপ

হাইলাইট করা শব্দগুলোর উপর মাউসের কার্সর ধরতে হবে। মোবাইল ব্যবহারকারীরা শব্দগুলোর উপর স্পর্শ করো।

তোমরা জানো যে, রিলেশন শব্দের অর্থ হচ্ছে সম্পর্ক।
তাহলে ডেটাবেজে রিলেশন মানে কী হতে পারে?
খুব সহজ। ডেটাবেজে রিলেশন বলতে বুঝায় ডেটাগুলোর মধ্যে সম্পর্ককে বোঝায়।

ডেটাবেজে অনেকগুলো ডেটা টেবিলের সমন্বয়ে গঠিত। এইসব টেবিলের ডেটার মধ্যে আবার সম্পর্ক আছে। ডেটাবেজের অন্তর্গত একটা টেবিলের ডেটার সাথে অন্য টেবিলের ডেটার যে সম্পর্ক তাকেই রিলেশন বলে।

ডেটা টেবিলগুলোর মধ্য সম্পর্ক স্থাপন করে প্রয়োজনীয় ডেটা নিয়ে আলাদা আর আলাদা আর একটি নতুন টেবিল গঠন করা যায়। সম্পর্কযুক্ত ডেটা টেবিলগুলোর সমন্বয়ে তৈরী ডেটাবেজকে বলা হয় রিলেশনাল ডেটাবেজ।

ডেটাবেজে রিলেশন তৈরীর শর্ত: রিলেশনাল ডেটাবেজে সম্পর্কযুক্ত দুটি পৃথক টেবিলকে সংযুক্ত করা যায়। তবে এ ক্ষেত্রে কিছু শর্ত আছে। শর্তগুলো হচ্ছে:

১। সম্পর্কযুক্ত ডেটা টেবিলগুলোর মধ্যে একটি কমন ফিল্ড থাকতে হবে।
২। কমন ফিল্ডকে প্রাইমারী কি ফিল্ড হিসেবে চিহ্নিত করতে হবে।
৩। সকল ডেটা টেবিলের কমন ফিল্ডের নাম, ডেটা টাইপ, ফিল্ড সাইজ ইত্যাদি হুবহু একই হতে হবে।
৪। উভয় টেবিল একই সাথে খোলা থাকতে হবে।

ডেটাবেজের রিলেশনকে চারভাগে ভাগ করা হয়:

(i) One to One রিলেশন
(ii) One to Many রিলেশন
(iii) Many to One রিলেশন
(iv) Many to Many রিলেশন

চলো আমরা এবার বিস্তারিত দেখে নিই কোন রিলেশন বলে কী বোঝায়:

One to One রিলেশন: যদি ডেটাবেজের একটি টেবিলের একটি রেকর্ড অপর একটি ডেটা টেবিলের কেবল মাত্র একটি রেকর্ডের সাথে সম্পর্কিত থাকে তবে তাদের মধ্যকার রিলেশনকে বলা হয় One to One রিলেশন।

যেমন ধরো, Student টেবিল ও Result টেবিল নামে দুটি টেবিল আছে। এখন এদের সম্পর্ক কীরকম হবে? একজন Student এর রেজাল্ট একটিই হতে পারে। তাই এদের মধ্যকার রিলেশন হবে One to One রিলেশন।

উপরের দুইটি টেবিলে খেয়াল করে দেখ, প্রতিটি রোল্ধারী শিক্ষার্থীর একটি করে ফলাফল আছে। এজন্য এ রিলেশন কে বলা হয় One to One রিলেশন।

One to Many রিলেশন: যদি ডেটাবেজের একটি টেবিলের একটি রেকর্ড অপর একটি ডেটা টেবিলের একাধিক রেকর্ডের সাথে সম্পর্কিত থাকে তবে তাদের মধ্যকার রিলেশনকে বলা হয় One to Many রিলেশন।

যেমন ধরো, Teachar টেবিল ও Subject টেবিল নামে দুটি টেবিল আছে। একজন টিচার একাধিক সাব্জেক্ট এর ক্লাস নিতে পারে। তাই এদের মধ্যকার রিলেশন হবে One to Many রিলেশন।

উপরের দুইটি টেবিলে খেয়াল করে দেখ, একজন টিচার একাধিক সাবজেক্ট এর ক্লাস নিতে পারেন। এজন্য এ রিলেশন কে বলা হয় One to Many রিলেশন।

Many to One রিলেশন: যদি ডেটাবেজের একটি টেবিলের একাধিক রেকর্ড অপর একটি ডেটা টেবিলের একটি রেকর্ডের সাথে সম্পর্কিত থাকে তবে তাদের মধ্যকার রিলেশনকে বলা হয় Many to One রিলেশন।

যেমন ধরো, Teachar টেবিল ও Subject টেবিল নামে দুটি টেবিল আছে। এখন, একাধিক টিচার একটি সাব্জেক্ট এর ক্লাস নিতে পারেন। তাই এদের মধ্যকার রিলেশন হবে Many to One রিলেশন।

উপরের দুইটি টেবিলে খেয়াল করে দেখ, একাধিক টিচার একটি সাবজেক্ট এর ক্লাস নিতে পারেন। এজন্য এ রিলেশন কে বলা হয় Many to One রিলেশন।

Many to Many রিলেশন: যদি ডেটাবেজের একটি টেবিলের একাধিক রেকর্ড অপর একটি ডেটা টেবিলের একাধিক রেকর্ডের সাথে সম্পর্কিত থাকে তবে তাদের মধ্যকার রিলেশনকে বলা হয় Many to Many রিলেশন।

যেমন ধরো, Teachar টেবিল ও Subject টেবিল নামে দুটি টেবিল আছে। এখন, একাধিক টিচার একাধিক সাব্জেক্ট এর ক্লাস নিতে পারেন। তাই এদের মধ্যকার রিলেশন হবে Many to Many রিলেশন।

উপরের দুইটি টেবিলে খেয়াল করে দেখ, একাধিক টিচার একাধিক সাবজেক্ট এর ক্লাস নিতে পারেন। এজন্য এ রিলেশন কে বলা হয় Many to Many রিলেশন।



প্রশ্নটি পড়ে উত্তরটি অনুমান করো



আশা করি, এই স্মার্ট বুকটি থেকে তোমরা রিলেশনশীপ সম্পর্কে পরিষ্কার ধারণা পেয়েছো। 10 Minute School এর পক্ষ থেকে তোমাদের জন্য শুভকামনা রইলো।