গুরুত্বপূর্ণ চুক্তি আলোচনা

(স্মার্টবুকে উল্লিখিত সকল তথ্য এপ্রিল, ২০২০ সাল পর্যন্ত বিবেচনা করে লেখা হয়েছে)

প্রথম ভার্সাই চুক্তি


হাইলাইট করা শব্দগুলোর উপর মাউসের কার্সর ধরতে হবে। মোবাইল ব্যবহারকারীরা শব্দগুলোর উপর স্পর্শ করো।

১ম বিশ্বযুদ্ধের পর জার্মানির সাথে মিত্রশক্তির যে চুক্তি হয় তা ইতিহাসের ২য় ভার্সাই চুক্তি হিসেবে স্বীকৃত। এর আগে ১৭৮০ সালে এই ভার্সাই নগরীতেই ব্রিটেন ও যুক্তরাষ্ট্রর মধ্যকার এক চুক্তি সম্পাদিত হয়। যুক্তরাষ্ট্রর স্বাধীনতা প্রশ্নে ব্রিটেন যুক্তরাষ্ট্রর সাথে এ চুক্তি করে। গ্রেট ব্রিটেনের অতিরিক্ত কর আরােপের ফলে যুক্তরাষ্ট্রর অনেকগুলাে প্রদেশ বিদ্রোহ শুরু করে। এই বিদ্রোহ যুক্তরাষ্ট্রর স্বাধীনতা যুদ্ধে রূপান্তরিত হয়। যুক্তরাষ্ট্রর এক একটি প্রদেশ স্বাধীন হতে থাকলে এই স্বাধীনতার ধারাবাহিক প্রক্রিয়া হিসেবে ব্রিটেন যুক্তরাষ্ট্রর সাথে ১৭৮০ সালে ফ্রান্সের ভার্সাই নগরে এই চুক্তি সম্পাদন করে।

সাক্ষরিত হয়: ১৭৮০ সালে।

সাক্ষর করে: বৃটেন ও যুক্তরাষ্ট্র।

ফলাফল: মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের স্বাধীনতা।

ভার্সাই: ফ্রান্সের প্যারিসের একটি উপশহর।

অপর নাম: মার্কিন স্বাধীনতা রক্ষা চুক্তি।


প্যারিস চুক্তি


১ম ভার্সাই চুক্তি যুক্তরাষ্ট্রর স্বাধীনতা অর্জনের একটি ধাপ ছিল মাত্র। তিন বছর পর ৩ সেপ্টেম্বর ১৭৮৩ সালে যুক্তরাষ্ট্র পূর্ণ স্বাধীন দেশ হিসেবে স্বীকৃতি লাভ করে।

সাক্ষরিত হয়: ১৭৮৩ সালে।

সাক্ষর করে: ব্রিটেন ও যুক্তরাষ্ট্র।

উদ্দেশ্য: মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সার্বভৌমত্ব স্বীকার করে নেয়া।

ফলাফল: আনুষ্ঠানিকভাবে যুক্তরাষ্ট্রর স্বাধীনতা যুদ্ধের পরিসমাপ্তি।


দ্বিতীয় ভার্সাই চুক্তি


১৯১৯ সালের বসন্তে প্যারিসে অনুষ্ঠিত প্যারিস শান্তি সম্মেলনে চুক্তির খসড়া করা হয়। খসড়ার মূল নকশা করেন চারজন নেতা যারা ইতিহাসে বিগ ফোর হিসেবে খ্যাত। কোন পরাজিত জাতি চুক্তির খসড়া তৈরিতে কোন ভূমিকা রাখতে পারেনি, এমনকি মিত্রশক্তির সহযোগী জাতিসমূহেরও তেমন উল্লেখযোগ্য কোন ভূমিকা ছিলনা।

সাক্ষরিত হয়: ১৯১৯ সালে।

সাক্ষর করে: প্রথম বিশ্বযুদ্ধের মিত্রশক্তি ও জার্মানি।

স্থান: ফ্রান্সের ভার্সাই নগরীতে।

উদ্দেশ্য: জার্মানীকে যুদ্ধাপরাধী চিহ্নিতকরণ এবং যুদ্ধের ক্ষতিপূরণ আদায়।

ফলাফল: প্রথম বিশ্বযুদ্ধের জন্য জার্মানীর ক্ষতিপূরণ প্রদান।


মানবাধিকার চুক্তি


মানবাধিকার সনদ বা Universal Declaration of Human Rights (UDHR) একটি ঘোষণাপত্র। ১৯৪৮ সালের ১০ ডিসেম্বর প্যারিসে অনুষ্ঠিত জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে এই ঘোষণা প্রদান করা হয়। প্রত্যেক মানুষের মানবাধিকার নিশ্চিত করার লক্ষ্য নিয়ে এই সনদ ঘোষিত হয়।

সাক্ষরিত হয়: ডিসেম্বর ১০, ১৯৪৮।
স্থান: জাতিসংঘের সদর দপ্তরে।
স্বাক্ষর করে: জাতিসংঘ।
উদ্দেশ্য: মানবজাতির প্রতিটি মানুষের সমান অধিকার রক্ষা করা।


জেনেভা কনভেনশন


ড্রপ ডাউনগুলোতে ক্লিক করে জেনে নাও বিস্তারিত




সঠিক উত্তরে ক্লিক করো


আশা করি, এই স্মার্ট বুকটি থেকে তোমরা গুরুত্বপূর্ণ চুক্তি আলোচনা সম্পর্কে পরিষ্কার ধারণা পেয়েছো। 10 Minute School এর পক্ষ থেকে তোমাদের জন্য শুভকামনা রইলো।