সপ্তম শ্রেণি: বাংলা দ্বিতীয় পত্র

সন্ধি

রাফা বাংলা ভাষা নিয়ে খেলা করতে অনেক পছন্দ করে। সে লক্ষ্য করলো, বাংলা ভাষাকে ছোট ছোট ভাগে ভাগ করে একটি পুরো শব্দ তৈরি করা যায়। যেমন: সোনা + আলি = সোনালি, রুপা + আলি = রুপালি। বাংলা ২য় পত্র বই পড়ে দেখলো, তাঁর এই খেলাকেই বাংলা ব্যাকরণে আসলে বলা হয় সন্ধি। চলো বন্ধুরা, তাহলে আমরা এই সন্ধি নিয়ে বিস্তারিত জেনে আসি।

সন্ধির প্রকারভেদ

বাংলা সন্ধি মূলত ২ প্রকার: (ক) স্বরসন্ধি, (খ) ব্যঞ্জনসন্ধি। আবার সংস্কৃতের নিয়ম মেনে বাংলা ভাষায় ব্যবহৃত তৎসম শব্দের সন্ধি ৩ প্রকার: (ক) স্বরসন্ধি, (খ) ব্যঞ্জনসন্ধি, (গ) বিসর্গ সন্ধি

চলো তাহলে এবার এই প্রকারভেদগুলো নিয়ে বিস্তারিত জেনে আসা যাক।

স্বরসন্ধি

স্বরধবনির সঙ্গে স্বরধবনির মিলনে যে সন্ধি হয় তাকে স্বরসন্ধি বলে।

স্বরধবনি গঠনের নিয়ম ও এর উদাহরণ নিচে দেখে নাও –


ব্যঞ্জনসন্ধি

বিসর্গসন্ধি

বিসর্গ (ঃ)-এর সঙ্গে স্বরধ্বনি কিংবা ব্যঞ্জনধ্বনির যে সন্ধি হয়, তাকে বিসর্গসন্ধি বলে।

বিসর্গ সন্ধি ২ প্রকার। যথা:



নিচের সন্ধিবিচ্ছেদের সঠিক উত্তর দিয়ে ঝালাই করে নাও


রাফার কাছে এখন সন্ধির ধারণা পরিষ্কার। তোমার বন্ধুদেরও ধারণা দিতে এখনই শেয়ার করে নাও এই স্মার্টবুকটি।