স্থির বিদ্যুৎ

বিভব পার্থক্য

ম্যাডাম সবাইকে বলছিলেন “তোমরা তো বিভিন্ন সময়ে দেখেছো যে বাসায় কিংবা অন্য জায়গায় বৈদ্যুতিক জিনিস সংক্রান্ত ঝুঁকি এড়াতে সতর্কবাণী দেয়া হয়ে থাকে। অনেকে আবার বিভিন্ন সময়ে খবরের কাগজেও পড়ে থাকো যে ইলেকট্রিক শক খেয়ে মারা গেছে বা গুরুতর অবস্থায় আছে অমুক। এই পুরো ব্যাপারটির পেছনেই রয়েছে বিভব বা পটেনশিয়াল।


পৃথিবী বা ভূমির বিভব শূণ্য

এবার ম্যাডাম বললেন, কল্পনা করো আমাদের এই পৃথিবী আসলে কতো বড়? পৃথিবী এত বিরাট যে, এতে আধান যোগ-বিয়োগ করলে এর বিভবের পরিবর্তন হয় না। যেমন, সমুদ্র থেকে পানি তুলে নিলে বা সমুদ্রে পানি ঢালা হলে এর পানি তলের কোনো পার্থক্য হয় না। পৃথিবী বিভিন্ন বস্তু থেকে প্রতিনিয়ত আধান গ্রহণ করে আবার সাথে সাথে অন্য বস্তুকে আধান সরবরাহও করে, ফলে পৃথিবীকে আধানহীন মনে করা হয়। কোনো স্থানের উচ্চতা নির্ণয়ের সময় সমুদ্রের উপরিতলের উচ্চতাকে যেমন শূন্য ধরা হয় তেমনি বিভব নির্ণয়ের সময় পৃথিবীর বিভবকেও শূন্য ধরা হয়।


ধারক বা Capacitor

ক্লাসের সময় বাকি আর মাত্র ৭ মিনিট। একটু পরেই টিফিন ব্রেকের ঘন্টা পড়ে যাবে। তাই ম্যাডাম চটজলদি এই অধ্যায়ের সর্বশেষ টপিক পড়ানো শুরু করেছেন। টপিকটি হলো ধারক বা ক্যাপাসিটর। ম্যাডাম ধারকত্ব বজায় রাখার জন্য উদ্ভাবিত যান্ত্রিক কৌশলই ধারক। কোনো উৎস থেকে যেমন তড়িৎ কোষ থেকে ধারক শক্তি সঞ্চয় করে তা পুনরায় ব্যবহার করা হয়। যে কোনো আকৃতির দুটি পরিবাহকের মধ্যবর্তী স্থানে কোনো অন্তরক পদার্থ। যেমন- বায়ু, কাচ, প্লাস্টিক ইত্যাদি স্থাপন করে ধারক তৈরি করা হয়।

Picture7

একটি সরল ধারক তৈরি করা হয় দুটি অন্তরিত ধাতবপাতকে পরস্পর সমান্তরালভাবে রেখে। যখন একটি ব্যাটারিকে এর দুটি পাতের সাথে সংযুক্ত করা হয়, তখন ব্যাটারির ঋণাত্মক দণ্ড থেকে ইলেকট্রন একটি পাতে প্রবাহিত হয় এবং এটি ঋণাত্মক আধানে আহিত হয়। ধারকের অন্য পাত থেকে ইলেকট্রন ব্যাটারির ধনাত্মক দণ্ডে প্রবাহিত হয়, ফলে ঐ পাত ধনাত্মকভাবে আহিত হয়। পাতগুলোতে কত আধান জমা হবে তা ব্যাটারির ভোল্টেজের উপর নির্ভর করে। ধারক রেডিও, টেলিভিশন, রেকর্ড প্লেয়ার এবং অন্যান্য ইলেকট্রনিক যন্ত্রপাতি সম্বলিত বর্তনীতে ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত হয়।



“ঢং ঢং ঢং!” – ঘন্টা পড়লো। ক্লাসের সময় সমাপ্ত। পুরো ক্লাস জুড়ে সাইয়ারা এবং সকলে স্থির বিদ্যুৎ সম্পর্কে বেশ ভালোই ধারণা পেল। তোমরাও নিজেদের যাচাই করতে নিচের Exerciseটি করে ফেলো এবং স্মার্টবুকটি ভালো লেগে থাকলে বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে একদমই ভুলো না!